আন্তর্জাতিক সময় সিঙ্গাপুরের জরিমানা নীতি, উন্নতির উৎকৃষ্ট উদাহরণ

২৪-০১-২০১৮, ০২:৪৫

কমল দে

fb tw
অপরাধপ্রবণ একটি দেশকে শুধুমাত্র আর্থিক জরিমানার মাধ্যমে সুশৃঙ্খলার পাশাপাশি কতোটা উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারে সিঙ্গাপুর তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ। নিজ দেশের নাগরিকদের পাশাপাশি কোটি পর্যটকের জন্য একই ধরণের আইন যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছে এর কঠোর প্রয়োগ। যে কারণে পান থেকে চুন খসলেই শত শত ডলার জরিমানা দিতে হয় এখানে।   
দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সমৃদ্ধশালী ছোট্ট দ্বীপ রাষ্ট্র সিঙ্গাপুরের ইতিহাস বেশি দিন আগের নয়। ১৯৬৫ সালে মালয়েশিয়া থেকে স্বাধীনতা  লাভ করে অপরাধ প্রবণ এলাকা হিসেবে পরিচিত পৌনে সাতশ বর্গ কিলোমিটারের এই রাষ্ট্রটি। স্বাধীনতার পর অপরাধ ও অপরাধীদের নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে তৎকালীন সরকার প্রধান লি কুয়ান জরিমানার বিধান চালু করেন। জরিমানা দেয়ার ভয়ে সিঙ্গাপুরের নাগরিকরা সচেতন হয়ে ওঠায় বর্তমানে অপরাধ এবং দুর্নীতিও তুলনামূলক কম। অপ্রাপ্ত বয়স্ক কারো কাছে সিগারেট বিক্রি করলে যেমন সিঙ্গাপুরি ১০ হাজার ডলার জরিমানা গুণতে হয়, তেমনি খেতে বসে খাবার নষ্ট করলে জরিমানা দিতে হবে ১০ ডলার।
সিঙ্গাপুরে বসবাসরত বাংলাদেশী নূরুল মোর্শেদ বলেন, 'এখানে একটা ময়লা যদি নির্দিষ্ট স্থানে না ফেলেন তাহলে জরিমানা গুনতে হয়। যা আমার ভালো লাগে।'
সিঙ্গাপুরে অবস্থানরত বাংলাদেশী ব্যবসায়ী আবদুল খালেক পারভেজ বলেন 'সিঙ্গাপুরের আইন খুব কড়া এখানে আইনকে ফাঁকি দিয়ে কিছু করা সম্ভব নয়।'
সিঙ্গাপুরের আইন অনুযায়ী, রাস্তায় বিক্ষিপ্তভাবে চলাচলের জন্য ২০০ ডলার, থুথু ফেলার জন্য ৭০ ডলার, ট্রাফিক আইন অমান্যের জন্য ২০০ থেকে ৫০০ ডলার, নির্ধারিত স্থানের বাইরে পোশাক পরিবর্তন কিংবা প্রাকৃতিক কাজ সারার জন্য ৫০০ ডলার, ধূমপানের জন্য ২০০ ডলার পর্যন্ত জরিমানা আদায় করা হয়। যে কোনো গণপরিবহনে খাবার কিংবা কোমলপানীয় পানের অপরাধে ২০০ ডলার জরিমানা গুনতে হয়। শুধু তাই নয়, রাস্তায় যানজট এড়াতে ভিন্ন পন্থা নিয়েছে সিঙ্গাপুর সরকার। যে কারণে এখানকার রাস্তায় কোনো যানজট নেই।  
বাংলাদেশী ব্যবসায়ী হাকিম আলী বলেন, 'জরিমানা দিলে আমাদের মধ্যে লজ্জাবোধ কাজ করবে সে জন্য আমরা আইনের বাইরে কাজ করি না।'
এনবিএল মানি ট্রান্সফার লিমিটেড'র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো জাকারিয়া হাবিব বলেন, 'এখানে সরকারি উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা থেকে কর্মচারীরা যেই আইন অমান্য করে তাকে জরিমানা গুনতে হবে।'
বর্তমানে সিঙ্গাপুরকে জাহাজ ও বন্দর নির্ভর ব্যবসা, বিমান বন্দরভিত্তিক হোটেল সুবিধা এবং চিকিৎসার জন্য এশিয়া ও আসিয়ান দেশগুলোর হাব হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop