মহানগর সময় ‘এত দুর্ভোগ জীবনে দেখিনি’

১০-০১-২০১৮, ১৯:৫৬

জুনায়েদ আল হাবিব

fb tw
তাবলীগ জামাতের দ্বন্দ্ব এখন রাজপথে। বিশ্ব ইজতেমায় দিল্লী মারকাজের শীর্ষ মুরব্বী মাওলানা সাদ কান্ধলভীর অংশগ্রহন ঠেকাতে ঢাকার বিমান বন্দর গোল চত্বরে বিক্ষোভ করেছে তাবলীগের একটি অংশ। এসময় বিমান বন্দর ও আশপাশের এলাকায় যান চলাচল বন্ধ হয়ে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজট। চরম দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ। পরে মানুষের দূর্ভোগের কথা বিবেচনা করে বিকেলে কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। তবে এরই মধ্যে মাওলানা সাদ বাংলাদেশে এসে কাকরাইল মসজিদে উঠেছেন। কিন্তু বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে যেন মাওলানা সাদ ঢুকতে না পারেন সে বিষয়ে মুসল্লিদের সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন আন্দোলনে নামা মুসল্লীরা। 
তাবলীগ জামাতের অন্যতম মুরব্বী ও দিল্লী মারকাজের প্রধান মাওলানা সাদ বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতে ঢাকা আসছেন এমন খবরে সকাল থেকেই বিমান বন্দর গোল চত্বরে জড়ো হন তাবলীগের একাংশের মুসল্লিরা। তাদের অভিযোগ মাওলানা সাদ বিভিন্ন বিষয়ে মনগড়া মন্তব্য করে বিতর্কিত। 
অবস্থানের এক পর্যায়ে পুরো বিমান বন্দর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করতে থাকেন তারা। তাবলীগের মুরব্বীদের দাবি, মাওলানা সাদ তার মনগড়া মন্তব্য করে তাবলীগ জামাতকে মানুষের মাঝে বিতর্কিত করে তুলতে চায়। তাই মন্তব্য প্রত্যাহার না করে সারা বিশ্বের মুসলমানদের অন্যতম ধর্মীয় এই সম্মেলনে অংশ নেয়ার কোন নৈতিক অধিকার তার নেই। এ জন্য তাকে একাধিকবার তাবলীগের শীর্ষ পরামর্শ সভা বা সুরার পক্ষ থেকে বিশ্ব ইজতেমায় অংশ না নিতে অনুরোধ জানানোও হয়েছিল। কিন্তু বিক্ষোভের মধ্যেই বাংলাদেশে এসে কাকরাইল মসজিদে উঠেছেন মাওলানা সাদ।
এক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘উনি নিজেকে আমীর হিসেবে দাবি করেন। কিন্তু আমাদের মাদারে এলেম দারুল উলুম সহ বিশ্বের সমস্ত প্রতিষ্ঠান এই ব্যাপারে ঐক্যমত যে তিনি বর্তমানে পরিপূর্ণ ইসলামের মধ্যে নাই। তিনি ইসলামের অপব্যাখ্যা দিচ্ছেন।’
আরেক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘তিনি স্বঘোষিত আমির।  বাংলাদেশেল সমস্ত তৌহিদী জনতা তাকে প্রত্যাখান করেছে।’
এদিকে, মুসল্লিদের বিক্ষোভের কারণে পুরো এলাকায় সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজটের। চরম দূর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ।
এয়ারপোর্ট ফেরত এক যাত্রী জানান, ‘বড় দুটো লাগেজ ছিলো। একটা আনতে পেরেছি, আরেকটা পারিনি। এত দুর্ভোগ আমি আমার জীবনে দেখিনি।’
আরেক যাত্রী বলেন, ‘যতো দাবিই আদায় করতে চাক, জনগণের দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে নয়। জনগণের জন্য সরকার।  হোক সে হিন্দুধর্ম, হোক সে ইসলাম ধর্ম- যাই হোক, আমাদের মতো দরিদ্র জনগণের হেনস্থা করার কোনো অধিকার কারো নাই।’  
মাওলানা সাদ যেন বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিতে না পারেন বিষয়ে সবাইকে নজর রাখার অনুরোধ জানিয়ে শেষ করা হয় বিক্ষোভ কর্মসূচি। ৬ ঘণ্টা পর স্বাভাবিক হয় বিমান বন্দর সড়কের যান চলাচল। 

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop