ভ্রমণ সবুজের সমারোহ এবং প্রাণীকুলের অনন্য নিদর্শন মধুপুর জাতীয় উদ্যান

১৩-১১-২০১৭, ০৯:৫৫

ভ্রমণ সময় ডেস্ক

fb tw
09
রাজধানী থেকে দূরত্ব ১শ' কিলোমিটারের কিছু বেশি। ২৫ হাজার একর জায়গা নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে মধুপুর জাতীয় উদ্যান। আছে বানর, হরিণসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী আর পাখি। নানা জাতের গাছপালায় ঘেরা বনের প্রাকৃতিক নিসর্গ মুগ্ধ করবে যে কাউকে। তবে নিরাপত্তা আর থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা না থাকায় পর্যটক আসেন খুবই কম। বন বিভাগ বলছে, প্রাকৃতিক পরিবেশ ঠিক রেখে পর্যটক আকর্ষণে প্রস্তুতি নিচ্ছেন তারা।
৪৫ হাজার একরের বিশাল বনাঞ্চল নিয়ে মধুপুরের গড়। এর অর্ধেকেরও বেশি অংশ নিয়ে ঘোষণা করা হয়েছে জাতীয় উদ্যান। এ বনের প্রধান আকর্ষণ এর গাছপালা আর প্রাণীকুল। চোখে পড়বে বানর। বেড়াতে আসা পর্যটকদের সঙ্গে মুহূর্তেই ভাব জমাতে দারুণ পারদর্শী এরা।
গাছ-পাতার ফাঁকে দেখা মিলবে হরিণের। পুরো বনে আছে বিভিন্ন প্রজাতির সরীসৃপ, উভচর, স্তন্যপায়ীসহ নানা জাতের পাখি। বনের নৈসর্গিক নিস্তব্ধতা যে কাউকে মুগ্ধ করবে নিঃসন্দেহে।
নিরাপত্তাহীনতাসহ নানা সমস্যায় এ জাতীয় উদ্যানে পর্যটক আসে খুবই কম। রাতে থাকার কোনো ব্যবস্থা না থাকাসহ আছে স্থানীয় বখাটেদের উৎপাতও।
টাঙ্গাইল বন বিভাগ বিভাগীয় বন কর্মকর্তা হোসাইন মুহম্মদ নিশাদ বলেন, 'বনের স্বাভাবিক বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে ইকো-ট্যুরিজমকে প্রাধান্য দিয়ে ১৮ কোটি টাকার একটি প্রকল্প আছে বাস্তবায়নের অপেক্ষায়।'
নিঃসঙ্গতা উপভোগ করতে চাইলে এ বনের তুলনা নেই। সুউচ্চ গাছের ঘন পাতার ফাঁকে রোদ্র ছায়ার লুকোচুরি আর পায়ের নিচে শুকনো ঝরাপাতার চুরমার হয়ে যাওয়া হয়তো আপনাকে নিয়ে যাবে কল্পনার রাজ্যে।
ফাএ/

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop