উত্তাল মার্চ মার্চের ষষ্ঠ দিনে আন্দোলনে যোগ দেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা

০৬-০৩-২০১৭, ০৯:০৫

সময় সংবাদ

fb tw
একাত্তরের মার্চের প্রতিটি দিনই ছিল অগ্নিঝরা। এ মাসের ষষ্ঠ দিনে, আন্দোলনরত জনগণের সমর্থনে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা স্বাধীকার আন্দোলনে যোগ দেন। জাতির উদ্দেশে বেতারে ভাষণ দেন প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান।
একাত্তরের এ দিনে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খান বেতার ভাষণে বাংলাদেশের জনগণকে দুষ্কৃতিকারী আখ্যা দেয় এবং ২৫শে মার্চ গণপরিষদের অধিবেশন ডাকেন। তবে এটি যে পাকিস্তানী সামরিক জান্তার কূটকৌশল তা বুঝতে পেরে, গোটা জাতি বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে শত শত আন্দোলনকারী দুর্বার প্রতিরোধ গড়ে তোলে। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে সামরিক বাহিনীকে ব্যারাকে ফিরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দিতে বাধ্য হয় তৎকালীন সরকার।
এদিন, পূর্ব পাকিস্তানের নতুন গভর্নর হিসাবে নিয়োগ পান লে.জে. টিক্কা খান। ৭ই মার্চের জনসভাকে ঘিরে সব ধরণের প্রস্তুতি নিতে থাকে আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনগুলো। সামরিক জান্তারা জনসভার প্রস্তুতিতে ভীত হয়ে, আধুনিক অস্ত্রশস্ত্র প্রস্তুত করতে থাকে। এদিনে, আওয়ামী লীগ নেতারা এক বিবৃতিতে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ রেডিওতে সরাসরি প্রচারের দাবি জানান।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop