খেলার সময় প্রায় বাতিলই হয়ে গেল ইউরোপিয়ান সুপার লিগ

২২-০৪-২০২১, ০১:০৭

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
প্রায় বাতিলই হয়ে গেল ইউরোপিয়ান সুপার লিগ
04
বেশিরভাগ ক্লাব নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ায় প্রায় বাতিলই হয়ে গেল ইউরোপিয়ান সুপার লিগ (ইএসএল)। ক্লাব ভক্তদের তোপের মুখে অনিশ্চিত হয়ে গেছে লিগের ভবিষ্যৎ। তবে, হাল ছাড়তে নারাজ ইএসএল কর্তৃপক্ষ। 
এখন পর্যন্ত থাকা কয়েকটি ক্লাব নিয়ে লিগ আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। তবে ইএসএল আলোর মুখ না দেখলেও, নতুন এই প্রজেক্টে বেশ কিছু ধারা নতুন মৌসুম থেকে যুক্ত হবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে। গ্রুপ পর্বে বাড়বে ম্যাচের সংখ্যা। আর্থিকভাবে লাভবান হবে বড় ক্লাবগুলো।
বিশ্ব ফুটবলাঙ্গণে যে বিদ্রোহের বীজ বপন করতে চেয়েছিল ইউরোপিয়ান বড় ক্লাবগুলো। তা চার দিন না যেতেই ক্রমশ স্তিমিত হয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ লিগ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ ৬ ক্লাব তীব্র আন্দোলনের মুখে নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ায় অনিশ্চিত হয়ে গেছে লিগের ভবিষ্যৎ। ফুটবল সমালোচকদের মতে, ইএসএল এখন বাতিল হবার অপেক্ষায়।
ইউরোপীয় ফুটবলে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলারের যে লোভ দেখিয়েছিল জেপি মরগান। ইংলিশ ক্লাবগুলো না খেললে সেই অর্থ ওঠানো কষ্ট হবে। ক্লাব ফ্যানদের বিদ্রোহ আর ফুটবলের প্রতি মানুষের ভালোবাসা তিতা সত্য বুঝতে শিখিয়েছে ফ্লোরেন্তিনো পেরেজদের। তবে পেশাদার ফুটবলে যে নেই কোনো আবেগ। ইএসএল তাদের সিদ্ধান্তে অটল।
ইএসএল কর্তৃপক্ষ অবশ্য এটিকে কৌশলে এড়িয়ে যাচ্ছে। তারা লিগ বাতিল না বলে তারা লিগটি কার্যকর করতে আরও সময় দরকার বলে পিছিয়ে নিচ্ছে। এমনটাই খবর বলছে ইংলিশ গণমাধ্যম দ্যা গার্ডিয়ান।
এখন পর্যন্ত নিশ্চিত তথ্য বলছে চার ক্লাব থাকছে ইএসএল প্রোজেক্টে। যেখানে বড় নাম স্প্যানিশ দুই ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা। ইতালিয়ান য়্যুভেন্টাস, এসি মিলানও সরাসরি তাদের নাম প্রত্যাহার করেনি। তবে তারাও যে ইএসএল ছাড়ার পথে এমন আভাস দিচ্ছে ইউরোপিয়ান গণমাধ্যম। তবে নতুন এই প্রজেক্ট যে ৭২ ঘণ্টার ব্যবধানে মৃত্যুর পথে তা অনেকটা নিশ্চিতই।
তবে সুপার লিগ হোক আর না হোক ইউরোপিয়ান ফুটবলে আসছে মৌসুম থেকে বড় ধরনের পরিবর্তন আসছে এটা নিশ্চিত। ইএসএলের প্রজেক্ট যখন ক্রমশ দুর্বল হওয়ার পথে তখন উয়েফা নিজেদের অবস্থান জানান দিচ্ছে আরও জোরদারভাবে।
নতুন মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সূচিতে আসছে পরিবর্তন। গ্রুপ পর্বে ম্যাচ হবে ১৮০টি। প্রতিটি ক্লাব ম্যাচ খেলবে ১০টি করে।ইএসএল প্রজেক্টের সাথে অনেকটাই মিলে যাচ্ছে এখানে।
তাছাড়া আসছে মৌসুম থেকে মোটা অংকের অর্থ পাবে বড় ক্লাবগুলো। এর জন্য ফিনেন্সিয়াল ফেয়ার প্লে রুল আনছে উয়েফা। যেখান থেকে টিভি রাইটস, টিকিটের অর্থসহ বিভিন্নভাবে উপকৃত হবে ক্লাবগুলো।
এখন দেখার পালা আদতে কতটা আলোর মুখ দেখে ইউরোপিয়ান সুপার লিগ। তবে ইএসএলের মোড়কে যে বিদ্রোহের দানা বেঁধেছে তাতে উপকৃত হবে বড় ক্লাবগুলো তা বলাই যায়।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop