প্রবাসে সময় সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে সমাহিত প্রিন্স ফিলিপ

১৮-০৪-২০২১, ০৯:৩৮

সোয়েব কবীর

fb tw
সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে সমাহিত প্রিন্স ফিলিপ
09
আড়ম্বরহীন রাষ্ট্রীয় আয়োজনে শেষ বিদায় জানানো হলো ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপকে। শনিবার তার শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। রাজকীয় বাসভবন উইন্ডসোর ক্যাসেলের পাশেই সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে সমাহিত করা হয় তাকে। আর এর মধ্যদিয়ে শেষ হলো ব্রিটিশ রাজপরিবারের দীঘর্তম জুটির অধ্যায়। তবে করোনার কারণে প্রিন্স ফিলিপের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নেন রাজপরিবারের ৩০ সদস্য।
১৫ বছর আগেই নিজের পছন্দমতো নকশা করা জলপাই রঙের ল্যান্ড রোভারে করেই শেষযাত্রায় গেলেন প্রিন্স ফিলিপ। শনিবার লন্ডনের স্থানীয় সময় বিকেল ৩টায় শুরু হওয়া ঘণ্টাব্যাপী রাজকীয় শেষকৃত্যানুষ্ঠানে ওই গাড়িতেই বহন করা হয় প্রিন্স ফিলিপের কফিন। ইংলিশ ওক কাঠের এ কফিনটি তৈরি করা হয়েছিল ৩০ বছর আগেই।
রাজকীয় পরিবারের সদস্য হয়েও মৃত্যুর আগে শেষ ইচ্ছা ছিল বিদায়লগ্নে যেন সবকিছু থাকে অনাড়ম্বরপূর্ণ। অন্যদিকে, করোনা মহামারির কারণে বিধিনিষেধ থাকায় তার মরদেহ সাধারণ জনগণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শায়িত রাখা হয়নি। তবে পুরো অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচারিত হয়।
শেষকৃত্যানুষ্ঠানের শুরুতেই ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপের মরদেহ উইন্ডসোর ক্যাসেলের প্রবেশপথে নিয়ে আসা হয়। জলপাই রঙের ল্যান্ড রোভারে করেই উইন্ডসোর ক্যাসেলের ভেতরে অবস্থিত সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে নিয়ে যাওয়া হয় কফিন। যাত্রাপথে ছিলেন রানি ও ডিউকের চার সন্তান প্রিন্স চার্লস, অ্যান্ড্রু, এডওয়ার্ড এবং প্রিন্সেস অ্যান। এছাড়া ছিলেন রাজ পরিবারের অন্যান্য সদস্য ও ডিউকের কর্মচারীরা।
বিকেল পৌনে ৩টায় মূল শোভাযাত্রাটি শুরু হয়। শোভাযাত্রার পেছনেই রাজকীয় বেন্টলি গাড়িতে ছিলেন রানি এলিজাবেথও।
এ সময় দুর্গের ভেতরে ছিল তোপধ্বনি। বাজানো হয় গির্জার ঘণ্টা। চিরনিদ্রায় শায়িত হওয়ার আগে প্রিন্স ফিলিপের সামনে নীরবে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। জানান শেষ শ্রদ্ধা।
শেষকৃত্যানুষ্ঠানে অংশ নেন রাজপরিবারের মাত্র ৩০ জন সদস্য। এতে অংশ নেওয়ার সুযোগ না পেলেও ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটে ১ মিনিট নীরবতা পালনের মধ্যদিয়ে প্রিন্স ফিলিপের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা জানান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এছাড়া নীরবতা পালন করে প্রিন্স ফিলিপকে শ্রদ্ধা জানান ব্রিটেনের সকল শ্রেণি-পেশার মানুষও।
এ শেষকৃত্যানুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে ব্রিটেনে জাতীয় শোক পালন করা হয়। তবে রাজপরিবার আরো এক সপ্তাহ ধরে শোক পালন করবে এবং তাদের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার সময় তারা কালো পোশাক পরবেন।
গত ৯ এপ্রিল শুক্রবার উইন্ডসর ক্যাসেলে ৯৯ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী, ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপ।
 

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop