বাংলার সময় পেটে গজ ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই, গৃহবধূর মৃত্যু

১৪-০৪-২০২১, ১৪:২২

বাহার রায়হান

fb tw
পেটে গজ ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই, গৃহবধূর মৃত্যু
09
সিজারের সময় পেটে গজ ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই করেছিলেন চিকিৎসকেরা। তারপর দীর্ঘ পাঁচ মাস নানা জটিলতায় ভুগে মারা গেছেন এক গৃহবধূ। মৃত গৃহবধূর নাম শারমিন আক্তার। তিনি কুমিল্লা দেবিদ্বার উপজেলার হোসেনপুর এলাকার মোবারক হোসেনের মেয়ে।
গৃহবধূ শারমিন আক্তারের বড় ভাই রুহুল আমিন জানান, তারা দুই ভাই-এক বোন। বোনের শ্বশুরবাড়ি পাশের মুরাদনগর উপজেলায়। তার স্বামী রাসেল উদ্দিন একজন পল্লী চিকিৎসক। গত ৫ নভেম্বর দেবিদ্বার উপজেলা সদরের আল ইসলাম ডায়াগনস্টিক সেন্টার অ্যান্ড হসপিটালে তার বোনের সিজার হয়। এ সময় একটি ছেলে সন্তান হয় তার। ডা. রোজিনা ও তার সহযোগী ডা. শারমিন আক্তার লিন্টা সিজার করান। সিজার শেষে পেটে গজ-ব্যান্ডেজ রেখে সেলাই করে দেন তারা।
এ ঘটনার পর শারমিনের ব্যথা হলে ডা. রোজিনা জানান, সিজার হলে ব্যথা হয়। পরে ডা. রোজিনা একমাসের ওষুধ দেন। এক মাস পার হলেও ব্যথা কমেনি।
 
শারমিনের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, এভাবে ওষুধ খাওয়া ও ঢাকায় বিভিন্ন হাসপাতালে পরীক্ষার জন্য যাওয়া-আসা করে চার মাস কেটে যায়। রোগীর অবস্থার আরও অবনতি হয়। পরে শারমিনের পরিবার তাকে কুমিল্লা ময়নামতি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে কিছু পরীক্ষা দেয়া হয়। পরীক্ষাগুলো কুমিল্লা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) করা হয়। পরীক্ষার পর ওই হাসপাতালের ডাক্তার কর্নেল শরিফুল ইসলাম নিশ্চিত হন, শারমিনের পেটে গজ ব্যান্ডেজ আছে। 
পরে গত ৫ এপ্রিল তিনি অপারেশন করে শারমিনের পেট থেকে গজ বের করে আনেন তিনি। কিন্তু ততদিনে শারমিনের পেটে ইনফেকশন হয়ে যায়। দ্বিতীয় দফায় অপারেশনের পর পাঁচদিন ময়নামতি জেনারেল হাসপাতালে শারমিনকে অবজারবেশনে রাখা হয়। কিন্তু অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় রোগীকে নিয়ে ঢাকায় যাওয়ার পরামর্শ দেন ডাক্তার শরিফ।
পরে শারমিনের পরিবার তাকে রাজধানীর ধানমন্ডিতে বাংলাদেশ মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে আইসিইউ ও লাইফ সাপোর্ট থাকার পর মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে শারমিন আক্তারের মৃত্যু হয়। 
নিহত গৃহবধূ শারমিনের স্বামী রাসেল বলেন, ডাক্তারের ভুলে আমার স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। আমার পাঁচমাস বয়সী একটি ছেলে ও সাড়ে তিন বছর বয়সী একটা মেয়ে আছে। ছোট ছোট ছেলে-মেয়েদের নিয়ে আমি এখন দিশেহারা। এ সময়  তিনি চিকিৎসকদের বিচার দাবি করেন।
এ বিষয়ে দেবিদ্বার আল ইসলাম হাসপাতালের এমডি নিয়াজ মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আজ শারমিন আক্তারের জানাজার পরে আমরা ডাক্তারদের নিয়ে বসব। তারপরেই বিস্তারিত বলব।
ডাক্তারের ভুলে রোগী মারা যাবার বিষয়ে কুমিল্লা জেলা সিভিল সার্জন মীর মোবারক হোসাইন বলেন, ‘আমি ঘটনা জেনেছি। আমরা এখনও ভুক্তভোগী পরিবার থেকে লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি। তবুও আমরা ওই ডাক্তার ও তার সহযোগীর বিষয়ে তদন্ত করব। তাদের বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’
এদিকে, মৃতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৪ এপ্রিল) সকাল ১০টায় বাবার বাড়িতে শারমিনের প্রথম জানাজা এবং দুপুরে স্বামীর বাড়িতে দ্বিতীয় জানাজা শেষে দাফন করা হবে। 
 
 

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop