বাংলার সময় যশোরে ভার্চুয়ালি নববর্ষ উদযাপন

১৪-০৪-২০২১, ১২:৩০

জুয়েল মৃধা

fb tw
যশোরে  ভার্চুয়ালি নববর্ষ উদযাপন
08
করোনার কারণে সাংস্কৃতিক সূতিকাগার যশোরে ভার্চুয়ালি বাংলা নববর্ষ উদযাপন করেছে ‘পুনশ্চ যশো‘ নামে একটি সংগঠন। বুধবার (১৪ এপ্রিল) সকাল ৯টায় ফেসবুক লাইভে ‘এসো হে বৈশাখ’ গানের মধ্যে দিয়ে নববর্ষের অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। পরে বাংলা নববর্ষ সংশ্লিষ্ট লোকগীতি, আঞ্চলিক গান, আধুনিক গান ও কবিতা পাঠ করা হয়।  
পুনশ্চ যশোরের সাধারণ সম্পাদক পান্না লাল দে বলেন, গত বছরও আমরা ফেসবুক লাইভে বাংলা নববর্ষের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলাম। বেশ সাড়া পেয়েছিলাম। সর্বাত্মক লকডাউনের কারণে যার ধারাবাহিকতায় এবারও ফেসবুক লাইভে নববর্ষ উদযাপন করছি। আগে থেকেই ফেসবুকে ঘোষণা দেয়া ছিল। ঘোষণা মতে সকাল ৯টায় এসো হে বৈশাখ দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করি। লাইভে অনেকে এ অনুষ্ঠান দেখেছেন। আশাকরি আমরা করোনামুক্ত হতে পারব এবং আগামীতে সাড়ম্বরে পহেলা বৈশাখ উদযাপন করব। 
এদিকে অনেক বিনোদন প্রিয় মানুষ ঘরে বসে ভার্চুয়ালি এ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। তারা লকডাউনের মধ্যেও এমন আয়োজনে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।
লাইভে অংশ নেওয়া সুকুমার দাস নামে একজন বলেন, করোনা মহামারির আগে যেভাবে বাংলা নববর্ষ উদযাপন করেছি তাতো হচ্ছে না। তাই ফেসবুকে বিভিন্ন সংগঠনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান দেখছি। সকালেই পুনশ্চ যশোরের অনুষ্ঠান দেখলাম বেশ ভালো লাগল। ঘরে বসেই উদযাপন করছি নববর্ষ। আগামীতে সুস্থ পরিবেশে আবারও বাংলা নববর্ষ উদযান করব সেই প্রত্যাশা।
আলমগীর হোসেন নামে অপর একজন বলেন, আমি সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সাথে জড়িত। যে কারণে জানতাম আজ ফেসবুক লাইভে বাংলা নববর্ষ উদযাপন হবে। সকালে বৈশাখের গানসহ বিভিন্ন ধরনের গান কবিতা শুনলাম। দিনের শুরুটা ভাল হলো। তবে আক্ষেপ পরিবার পরিজন নিয়ে বরাবরের মত বের হতে পারব না। তবে সুস্থ থাকতে ও জীবন বাঁচাতে সরকারি নির্দেশনা মেনে ঘরে আছি।
প্রসঙ্গত, ১৯৮৬ সালে যশোরে চারুপীঠ নামের একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান প্রথমবারের মতো নববর্ষ উপলক্ষে আনন্দ শোভাযাত্রার আয়োজন করে। সেই শোভাযাত্রায় ছিল বিভিন্ন পাপেট, বাঘের প্রতিকৃতি, পুরনো বাদ্যযন্ত্রসহ আরো অনেক শিল্পকর্ম স্থান পায়। শুরুর বছরেই যশোরে শোভাযাত্রা আলোড়ন তৈরি করে। এরপর থেকে যশোরে প্রতিবছরই নববর্ষের সকালে মঙ্গল শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।  
পরবর্তীতে ১৯৮৯ সাল থেকে যশোরের সেই শোভাযাত্রার আদলেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ থেকে বর্ষবরণে মঙ্গল শোভাযাত্রা শুরু হয়। এরপর ২০১৬ সালের ৩০ নভেম্বর বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি দেয় ইউনেসকো।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop