অন্যান্য সময় গর্ভাবস্থায় ফের ‘অন্তঃসত্ত্বা’ হন রেবেকা

০৯-০৪-২০২১, ২০:৫৭

অন্যান্য সময় ডেস্ক

fb tw
সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত
08
ইংল্যান্ডের উইল্টশায়ারে বসবাস করেন রেবেকা-রিস দম্পতি। বছর খানেক আগে দীর্ঘ সময়ের বন্ধ্যাত্ব কাটিয়ে অন্তঃসত্ত্বা হন ৩৯ বছর বয়সী রেবেকা। পরে আল্ট্রাসনোগ্রাম করে দেখতে পান তাদের অনাগত সন্তানের অস্তিত্ব। এমনকি শুনতে পান হৃদস্পন্দনও। খবর ওয়াশিংটন পোস্ট। 
আল্ট্রাসনোগ্রামের ওই প্রতিবেদনে প্রসূতিবিদ লিখেছিলেন, তার গর্ভে একটি সন্তান বেড়ে ওঠার কথা। আর জীবনের প্রথম আল্ট্রাসনোগ্রাম করানোর অভিজ্ঞতা জানিয়ে রেবেকা বলেন, ‘তার মনে আছে। পরীক্ষার পর বেশ খুশি মনে সেখান থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন তিনি।’   
প্রথম আল্ট্রাসনোগ্রামের ৫ সপ্তাহ পর দ্বিতীয়বার আল্ট্রা করতে গিয়ে দেখেন যে রেবেকার গর্ভে বিস্ময়কর ঘটনা ঘটে গেছে। তার গর্ভে দুটি সন্তান বেড়ে উঠছে। কিন্তু তারা জমজ নয়। আর একটির চেয়ে অপর সন্তানটি তুলনামূলক কম বিকাশমান। 
রেবেকা জানান, তিনি প্রথমে ভেবেছিলেন যে ভয়ঙ্কর কিছু ঘটে গেছে হয়তো। তার দিকে তাকিয়েছিলেন আল্ট্রাসনোগ্রামের কর্মীরা। আর রেবেকাও তাদের দিকে তাকিয়ে ছিলেন। সে মুহূর্তে তারা তাকে জানালো যে তিনি, দুটি সন্তানের মা হতে চলেছেন। এমনকি তার গর্ভের ওই সন্তানগুলো যমজ নয়।  
ওয়াশিংটন পোষ্ট তাদের এক প্রতিবেদনে এমন গর্ভধারণ বিরল ঘটনা হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকে বলে জানিয়েছে। 
এমনকি এ ঘটনাকে বিরল উল্লেখ করে রেবেকার প্রসূতিবিদ ডেভিড ওয়াকার জানান, তার ২৫ বছরের এই পেশায় কখনও এমন অভিজ্ঞতা হয়নি। যা খুবই বিরল ঘটনা। 
তিনি আরও জানান, সাধারণত এমনটা হয় না। তাই বিষয়টি অধিকতর নিশ্চিতের জন্য কয়েকবার স্ক্যান করানো হয়। এরপর নিশ্চিত হন যে রেবেকার গর্ভে দুটি সন্তান রয়েছে। নানা পরীক্ষার পর জানতে পারেন যে দ্বিতীয় সন্তানটির বৃদ্ধির হার তিন সপ্তাহ কম। এ থেকেই তারা বুঝতে পারেন যে, অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় আবারও অন্তঃসত্ত্বা হন রেবেকা। 
রেবেকার ক্ষেত্রে জাটিলতা থাকায় গর্ভের দ্বিতীয় সন্তানটি নাও বাঁচতে পারে। এমনটিই বলে সতর্ক করেছিলেন চিকিৎসকেরা। 
রেস দম্পতির অনাগত সন্তনদের সম্ভাব্য জন্মদানের তারিখ এক না থাকায় একই সময়ে সিজারের নিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকেরা। অবশেষে ২০২০ এর ১৭ সেপ্টেম্বর ২ মিনিটের ব্যবধানে দুটি সন্তানের জন্ম দেন রেবেকা। প্রথম জন্ম নেয়া শিশু নোয়াহর ওজন ছিল ৪ পাউন্ড ১০ আউন্স ও মেয়ে রোজালির বয়স ছিল ২ পাউন্ড ৭ আউন্স। ওজন কম হওয়ায় টানা ৯৫ দিন রাখা হয় হাসপাতালে।  
রেবেকা জানিয়েছেন, তাদের ওই সন্তানদের বয়স প্রায় ৬ মাস। তারা একই দিনে জন্মগ্রহণ করলেও দেখে স্পষ্টতই বোঝা যায় যে বয়সের একটা ব্যবধান রয়েছে। 
আর এমন ঘটনাকে অলৌকিক মনে করেন রেবেকা। আর তার প্রমাণ তার দুটি সন্তান। 

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop