বাংলার সময় মাগুরায় হত্যার পর পুড়িয়ে দেয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে

০৭-০৩-২০২১, ২১:৩৯

ওয়েব ডেস্ক

fb tw
 মাগুরায় হত্যার পর পুড়িয়ে দেয়া ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে
04
মাগুরায় একব্যক্তিকে হত্যার পর তার মরদেহ আগুনে পোড়ানোর দায়ে ৩ জনকে আটক করা হয়েছে। মৃত ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে বলেও জানায় পুলিশ।
আটককৃতরা হলেন- মিনহাজ (মিরাজ) বয়স ২৮, পেশায় চাতাল শ্রমিক, শহর আলী (৬৯) পেশায়  কাঁচামাল ব্যবসায়ী ও আনসার উদ্দিন বিশ্বাস (৬৫) পেশায় তিনি একজন কৃষক।  
 
রোববার (৭ মার্চ) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান মাগুরার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. জহিরুল ইসলাম।
পুলিশ সুপার মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। নিহত এসকেন মোল্লা আগে থেকেই অভিযুক্ত ব্যক্তিদের সঙ্গে জুয়া খেলে আসছিলেন এবং বেশির ভাগ সময় তিনিই জয়ী হতেন। ফলে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা তার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওই দিন পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করেন।
তিনি আরও বলেন, নিহত ব্যক্তির দুই স্ত্রী। নিখোঁজের এতদিন তার কোনো খবর কেউ নেয়নি।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় মাগুরা সদর উপজেলার দারিয়াপুর গ্রামের মাঝপাড়া এলাকার নির্জন মেহগনিবাগানে ১ মার্চ রাতে জুয়ার আড্ডায় বসে তারা। রাত ১০টা থেকে শুরু হয়ে এ আড্ডা চলে রাত ১টা পর্যন্ত। খেলা শেষে জিতে যাওয়া ব্যক্তির সঙ্গে বাগবিতণ্ডা শুরু হয় অন্যদের। তখন তার কাছ থেকে টাকা ছিনিয়ে নিয়ে জিআই পাইপ ও লোহার চেইন দিয়ে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বাকিরা। আলামত ধ্বংসের উদ্দেশ্যে পাশে জমে থাকা গাছের পাতা দিয়ে তাকে পুড়িয়ে দেয় বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।
মাগুরার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. জহিরুল ইসলাম জানান, নিহত ব্যক্তির নাম মো. এসকেন মোল্লা (৭৩)। তার বাড়ি পাশের ঝিনাইদহ জেলার সদর উপজেলার হাট গোপালপুরের খুলুল বেড়বাড়ি গ্রামে। অজ্ঞাত হিসেবে মাগুরার কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এসকেন মোল্লা মাগুরা সদর উপজেলার আলমখালী বাজারে গবাদিপশুর ব্যবসা করতেন।
তিনি আরও বলেন, ১ মার্চ সকালে স্থানীয় লোকজনের কাছ থেকে খবর পেয়ে দারিয়াপুর গ্রামের আবু তাহের মিয়ার মেহগনিবাগান থেকে আগুনে পুড়ে বিকৃত হয়ে যাওয়া একটি মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তাৎক্ষণিকভাবে পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় ময়নাতদন্ত শেষে অজ্ঞাত হিসেবে লাশটি দাফন করা হয়। ওই দিনই সদর থানা–পুলিশের উপপরিদর্শক শ্রীবাস কুণ্ডু বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা করেন। বিষয়টি নিয়ে পুলিশের পাশাপাশি তদন্তে নামে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ও পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।
সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, ঘটনাস্থল থেকে একটি ভাঙা মোবাইলফোন জব্দ করে পুলিশ। ওই ফোনের সূত্র ধরে হত্যাকাণ্ডের চার দিন পর নিহতের পরিচয় শনাক্ত করা হয়। একইসঙ্গে ফোনের কললিস্ট ধরে শনিবার ভোরে মিনহাজ ওরফে মিরাজ (২৮) নামের এক যুবককে আটক করা হয়। পরে মাগুরা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে মিনহাজ। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠান।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, গ্রেপ্তার মিনহাজের জবানবন্দি অনুযায়ী, এ ঘটনায় জড়িত দুই আসামি মাগুরা সদর উপজেলার রাজারামপুর গ্রামের আনসার উদ্দিন বিশ্বাস (৬৫) ও একই উপজেলার সাচানী গ্রামের মো. শহর আলীকে (৬৯) রোববার ভোরে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় আরও দুজন সরাসরি জড়িত আছেন বলে তারা জানিয়েছেন। তাদের ধরতে অভিযান চলছে বলে জানান পুলিশ।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop