বাংলার সময় ভোলায় কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ, নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর

২৬-০২-২০২১, ২১:৩১

ভোলা প্রতিনিধি

fb tw
ভোলায় কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ, নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর
03
ভোলা সদর ও চরফ্যাশন পৌরসভার কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ভাঙচুর করা হয়েছে ২টি নির্বাচনী অফিস, নির্বাচনী প্রচারণার গাড়ি, ওষুধের দোকান ও মোটরসাইকেল। 
এ ঘটনায় আহত হয়েছে কমপক্ষে ২৫ জন। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সংঘর্ষের ঘটনায় প্রার্থীরা একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগ রয়েছে, শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টায় ভোলা পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুর রবের ওয়েষ্টার্ন পাড়ার নির্বাচনী অফিসে হামলা ও ভাঙচুর চালায় তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ওমর ফারুক। এসময় আবদুর রবে লোকজন বাধা দিলে দুই প্রার্থী কর্মী সমর্থকদের মধ্যে কয়েক দফা দাওয়া পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটে। এলোপাতাড়ি ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও পিটুনিতে দুই পক্ষের ১৫ জন আহত হয়।  
ভাঙচুর করা হয়েছে উভয় প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস, একটি মোটর সাইকেল ও ফ্যামিলি ফার্মেসি নামে একটি ওষুধের দোকান। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও মুখোমুখি উত্তেজনা। আবদুর রব অভিযোগ করেন, তার বাসার সামনে নির্বাচনী অফিসে কয়েকজন কর্মী বসেছিল। এসময় তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ওমর ফারুকের লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায়। পিটিয়ে ৭ জনের মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে এবং ২ জনের হাত ভেঙে দিয়েছে। 
তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে ওমর ফারুক বলেন, তিনি নির্বাচনী অফিসে আসার সময় আবদুর রবের লোকজন অশালীন স্লোগান দেয়। এক পর্যায়ে তার নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। এতে তার ৫/৬ জন কর্মী আহত হয়েছে। একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করলেও দুইজনইে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন।
এর আগে (সন্ধ্যার পর) ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সির প্রার্থী মিজানুর রহমানের নির্বাচনী অফিস ও প্রচার মাইকের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার জন্য মিজান তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী এফনারুন রহমানের কর্মীদের দায়ী করেছেন। নির্বাচন বানচাল করার জন্য  জঙ্গি মিছিল নিয়ে তার অফিসে হামলা চালানো হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন মিজান। এতে তার ৫ জন কর্মী আহত হয়।  তবে এফরানুর রহমান এসব হামলার ঘটনাকে অস্বীকার করে নির্বাচনী পরিবেশ নস্যাৎ করার জন্য ঘটনাকে সাজানো হয়েছে বলে দাবি করেন। এদিকে ঘটনার পরপরই বিপুল সংখ্যক পুলিশ এসে অবস্থান নিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।  
অপরদিকে চরফ্যাশন পৌরসভার ২নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিল প্রার্থী নজরুল ইসলাম কৃষাণের বাড়িতে হামলা চালিয়েছে তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মো. মফিজের সমর্থকরা। তারা নজরুলের ২টি মোটর সাইকেল ভাঙচুর করে এবং একটি মোটর সাইকেল ছিনিয়ে নেয়। হামলার পাশাপাশি হুমকি ধামকি দিয়ে নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করতে চাচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন। 
আর অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার মো. আলাউদ্দিন আল মামুন।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop