পশ্চিমবঙ্গ তিস্তার পানির ব্যাপারে রাজনৈতিক রঙ লাগাবেন না, মমতাকে তথ্য সচিব

০৮-০২-২০২১, ২২:২২

আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক

fb tw
তিস্তার পানির ব্যাপারে রাজনৈতিক রঙ লাগাবেন না, মমতাকে তথ্য সচিব
02
তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব খাজা মিয়া মহাভারতের দৌপ্রদীর পাঁচ স্বামীর উদাহরণ তুলে ধরে বলেছেন, ‘আমার জানা মতে অর্জুন যখন দৌপ্রদীকে লক্ষ্যভেদ করে মা কুন্তির সামনে নিয়ে আসেন, তখন মা কুন্তী কোনো কিছুই না দেখে পাঁচ ভাইয়ের মধ্যে দ্রৌপদীকে ভাগ করে নিতে বলেন। সেই কারণেই দৌপ্রদীর পাঁচ স্বামী। আমরা রাজনৈতিকভাবে ভাগ হয়ে গেলেও আদতে আমরা বাঙালি, তাহলে আমরা কেন পানি (তিস্তার পানি) ভাগ করে নিতে পারবো না?
সোমবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় কলকাতা প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশের চলচ্চিত্র’ শিরোনামে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্যসচিব এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান।
কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের সহযোগিতায় তথ্য মন্ত্রণালয় অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে।
তথ্য সচিব বলেন, প্রেসক্লাবে আপনাদের মাধ্যমে দিদিকে (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) এই বিষয়ে আবেদন করতে চাই। আমরা যদি (পানি) ভাগাভাগি করে নিতে পারি তাহলে আমাদের মধ্যে কোনো বিভেদ থাকবে না। এটাতে দয়া করে কোনো রাজনৈতিক রঙ দেবেন না। এটা আমাদের অধিকারের কথা বললাম। 
প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান বলেছেন, ‘বাংলাদেশ এবং ভারতের সম্পর্ক অটুট ছিল আছে এবং থাকবে।’
তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান বলেন, ‘কলকাতার ঐতিহাসিক প্রেসক্লাব আমাদের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সহযোগী। বাংলাদেশের স্থপতি শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে যে জনসভায় বক্তব্য রেখেছিলেন তা ইতিহাসে সর্ববৃহৎ এবং বিশাল সমাবেশ যেখানে ১৪ লাখ পশ্চিমবঙ্গের মানুষ সমবেত হয়েছিলেন। সেই সময় পশ্চিমবঙ্গের মানুষ বঙ্গবন্ধুর প্রতি সমর্থন করেছিলেন তা আন্তরিকভাবে স্মরণ করছি।’ 
একই সাথে ভারতের জাতির পিতা মহাত্মা গান্ধী ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে গভীরভাবে স্মরণ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ইন্দিরা গান্ধীর অবদান বাংলাদেশ চিরকাল মনে রাখবে। ৬ ফেব্রুয়ারির ব্রিগেডে বঙ্গবন্ধুর ভাষায় বলতে চাই, বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক চিরকাল অটুট ছিল আছে এবং থাকবে।’ 
মহামারির এই সময় ভারতের কাছ থেকে বাংলাদেশ বিশ লাখ ভ্যাকসিন উপহার পেয়েছে এবং এই ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে তিন কোটি ভ্যাকসিন পাবে, উল্লেখ করেন তিনি।
অনুষ্ঠানে তথ্য সচিব খাজা মিয়া বিশেষ অতিথি হিসেবে এবং ভাষাবিদ ড. পবিত্র সরকার, অভিনেতা ও চিত্র পরিচালক সৃজিত মুখার্জী সভায় বক্তব্য রাখেন। কলকাতায় বাংলাদেশের উপ-হাইকমিশনার তৌফিক হাসানের সভাপতিত্বে প্রথম সচিব প্রেস ড. মো. মোফাকখারুল ইকবাল অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop