বিনোদনের সময় আলোচিত কে এই মাহসান স্বপ্ন?

২৩-০১-২০২১, ১৪:০৯

বিনোদন প্রতিবেদক

fb tw
সংগৃহীত
ছবি: সংগৃহীত
03
ইউটিউব চ্যানেল ‘মজার টিভি’র মাধ্যমে সোশ্যাল দুনিয়ায় পরিচিত তিনি। আদি বাড়ি কুমিল্লা হলেও ঢাকায় তার বেড়ে ওঠা। বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব গ্লাস অ্যান্ড সিরামিকস থেকে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করেছেন তিনি। মঞ্চ দিয়ে মিডিয়ার পথচলা শুরু, কাজ করেছেন একাধিক টেলিভিশনেও। বর্তমান ব্যস্ততা মজার টিভিকে ঘিরে। বলছিলাম মাহসান স্বপ্নর কথা।
সম্প্রতি এক নারী ভিক্ষুকের ভিডিও ভাইরাল হয় মজার টিভির ফেসবুকে পেজ থেকে। তারপর ওই নারীর বাবা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন মাহসান স্বপ্ন এবং ভাইরাল ওই নারীর বিরুদ্ধে। এরপর থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে বেশ আলোচিত মাহসান স্বপ্ন।
মজার টিভি প্রসঙ্গে মাহসান স্বপ্ন বলেন, ‘২০১৫ সালে ‘মজার টিভি’ ইউটিউব যাত্রা শুরু করে। শুরুতে আমি ফানি ভিডিও, প্র্যাঙ্ক ভিডিও করি। হিরো আলমের ইন্টারভিউ করার মাধ্যমে দেশবাসী আমাকে চিনে। প্র্যাঙ্ক ভিডিও দেশের মানুষ পছন্দ করে না। তারপর আমি প্র্যাঙ্ক ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই এবং সাক্ষাৎকারভিত্তিক কনন্টেন্ট বানানো শুরু করি। বর্তমানে আমার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার ১০ লাখের বেশি। আর ফেসবুকে পেজের ফলোয়ার প্রায় সাড়ে সাত লাখ।’
২০১৯ সালে কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান মাহসান স্বপ্নের মা। মাকে বাঁচাতে সে সময় অনেকের সাহায্য চেয়েছিলেন তিনি কিন্তু আশানুরূপ সাড়া পাননি। মায়ের মৃত্যুর পর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর। অসহায় মানুষকে সাহায্য করার। আলাপকালে এমনটাই জানান তিনি। তার ভাষায়, ‘অসুস্থ, অসহায় যাদের আর্থিক সাহায্য দরকার তাদের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যারা টাকার জন্য চিকিৎসা করতে পারেন না আমি তাদের নিয়ে মজার টিভিতে প্রতিবেদন করা শুরু করি।’
এ রকম প্রতিবেদন করে অনেকে প্রতারণা করেছে। যার প্রমাণ আহসান হাবিব পেয়ার। এএইচপি টিভি নামের ইউটিউব চ্যানেল দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। আপনার ক্ষেত্রে এমন অভিযোগ আসার সুযোগ নেই তো? জানতে চাইলে মাহসান স্বপ্ন বলেন, ‘ইতোপূর্বে অনেকে প্রতারণা করেছে কিন্তু আমার এখানে খুব স্বচ্ছ আছে। আমি রোগীর মুখ থেকেই উনার ফোন নম্বর বলতে বলি এবং রোগীর সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করিয়ে দেই। আমার সঙ্গে অনেক রোগী নিজ থেকেই যোগাযোগ করে তাদের রিপোর্টের সত্যতা জেনেই তাকে নিয়ে প্রতিবেদন করি। এর জন্য আমি এক পয়সাও নেই না। আমার দিক থেকে শতভাগ স্বচ্ছ আছি, যে কোনো চ্যালেঞ্জ আমি নিতে পারব।’
সম্প্রতি শাহবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) হয়েছে মাহসান স্বপ্নর বিরুদ্ধে। বিচারপতি (অব.) শামছুল হুদা বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ডায়েরিটি করেন। জিডি সম্পর্কে অবগত হয়েছেন উল্লেখ করে স্বপ্ন বলেন, ‘ধানমন্ডির একটি সড়ক দিয়ে গাড়িতে করে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ দেখি একজন মহিলা হাউমাউ করে কান্না করছে। তার পাশে গিয়ে দেখলাম সেখানে লেখা, আমি বিচারপতি শামসুল হকের মেয়ে। আমাকে সাহায্য করুন। তারপর আমি ওই মহিলার মেডিকেলের পেপারগুলো দেখি এবং বিচারপতির নাম প্রকাশ না করে ভিডিও প্রকাশ করেছি। আমি বিচারপতি শব্দটি উল্লেখ করেছি কিন্তু উনার নাম প্রকাশ করিনি। তাকে হুমকি দেওয়ার যে বিষয় জিডিতে বলা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি শতভাগ আত্মবিশ্বাসী উনি কোনো প্রমাণ দেখাতে পারবেন না। আমাকে হত্যার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। আমি আইনের আশ্রয় নিব। আমার কাছে যথেষ্ঠ প্রমাণ আছে। সময় হলে সেগুলো আমি প্রকাশ করব।’
মজার টিভিতে সাক্ষাৎকারমূলক ভিডিও প্রকাশ নিয়মিত করছেন মাহসান স্বপ্ন। পাশাপাশি তার ফেসবুক পেজে অসহায় মানুষদের নিয়ে প্রতিবেদন করে যেতে চান। মানুষের পাশে থাকতে চান মাহসান স্বপ্ন। তার ভাষায়, ‘এগুলো আমি করে যাব কারণ মানুষের সাহায্য হয়। এগুলো নিয়ে কেউ বিতর্কিত করতে পারবে না। কারণ সবকিছু স্বচ্ছ। যতদিন বেঁচে আছি মানুষের পাশেই থাকতে চাই।’

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop