বাণিজ্য সময় বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণের পরই বিটকয়েনের বড় দরপতন!

২২-০১-২০২১, ১০:২৪

হরিপদ সাহা

fb tw
বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণের পরই বিটকয়েনের বড় দরপতন!
12
দ্রুত জনপ্রিয়তা পাওয়া ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েনের দাম বৃহস্পতিবার প্রায় ১১ শতাংশ কমে গেছে, যা গত তিন সপ্তাহের মধ্যে এটি সর্বনিম্ন পর্যায়ে পৌঁছায়। এদিন একেকটি বিটকয়েনের দাম দাঁড়ায় ৩১ হাজার ৮৩৮ ডলারে। 
কারণ হিসেবে বাণিজ্যবিষয়ক মার্কিন গণমাধ্যমে বিজনেস ইনসাইডারে বলা হয়েছে, জনপ্রিয় এ ক্রিপ্টোকারেন্সির একটি দুবার ব্যবহারের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিটকয়েন লেনদেনে ব্যবহারকারীদের আস্থায় আঘাত হানে বলে মনে করা হচ্ছে। 
  
এদিকে প্রেসিডেন্স জো বাইডেনের ট্রেজারি সেক্রেটারি হিসেবে চূড়ান্ত হওয়ার পরই জ্যানেট ইয়েলেন মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) পরামর্শ দেন, আইনপ্রণেতাদের বিটকয়েনে কিছুটা নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা নিতে হবে, কেননা অবৈধ কর্মকাণ্ডে এর ব্যবহারের ঝুঁকি আছে। 
এর পাশাপাশি গত বুধবার বিটমেক্স রিসার্চের একটি প্রতিবেদনে বলা হয় যে, বিটকয়েন ব্লকচেইনে ‘ডাবল ব্যয়’ বা দুবার খরচ করার একটি  ত্রুটি ঘটেছে। দ্বিগুণ ব্যয় হলো এমন বিষয় যখন কেউ একই বিটকয়েন একই সময়ে দুবার ব্যয় করতে পারে। এমন ঘটনা বিটকয়েনের মতো ডিজিটাল অর্থের জন্য একটি আশঙ্কাজনক ও মারাত্মক বিষয়।  
বিটমেক্স রিসার্চ টুইট করেছে যে ‘মনে হচ্ছে প্রায় ০. ০০০৬২০৬৩ বিটিসি বা ২১ ডলারের একটি ছোট ডাবল ব্যয় ধরা পড়েছে।’
যদিও বিটফিনেক্সের (মার্কিন আর্থিক প্রতিষ্ঠান) সিটিও পাওলো আরদোইনোর মতে শেষ পর্যন্ত ডাবল-ব্যয়ের ঘটনা ঘটেনি। মার্কিন গণমাধ্যম ইনসাইডারকে একটি ইমেইলে আর্দোইনো ব্যাখ্যা করেন, ‘আসলে যা হয়েছিল তা হলো দুটি ব্লক একই সঙ্গে খনন করা হয়েছিল। যার ফলে সেখানে একটি চেইন পুনর্গঠন হয়েছিল, তাই দুবার ব্যয় হয়নি।’
তবে এর মধ্যেই প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা বিটকয়েনের এক্সপোজার অর্জন করতে থাকে। 
সর্বশেষ তথ্য প্রাপ্ত তথ্যে দেখা যায়, শুক্রবারও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিটকয়েনের দাম আরো প্রায় ৪ শতাংশ কমে পৌঁছায় ৩০ হাজার ডলারের নিচে। বাংলাদেশি মুদ্রায় একটি বিটকয়েনের দাম প্রায় ২৫ লাখ টাকারও ওপরে। 
উল্লেখ্য, বিটকয়েনের লেনদেন হয় প্রেরক থেকে সরাসরি প্রাপকের কম্পিউটারে অনলাইনের ভিত্তিতে। এই লেনদেনগুলির নিষ্পত্তি ও সত্যতা নির্ধারিত হয় ক্রিপ্টোগ্রাফির মাধ্যমে যার হিসাব প্রকাশ করা হয় সবার কাছে। এই উন্মুক্ত এবং প্রকাশিত হিসাবকেই বলা হয় ব্লকচেইন। বিটকয়েন উৎপাদিত হয় মাইনিংয়ের মাধ্যমে যেখানে কম্পিউটারের প্রসেসিং ক্ষমতার ভিত্তিতে লেনদেন লিপিবদ্ধ এবং সত্যায়িত করা হয়। 
বর্তমানে বিটকয়েন ডিজিটাল মুদ্রা, পণ্য বা সেবা আকারে ব্যবহার করা হয়। বৈধ পণ্য লেনদেন ছাড়াও মাদক চোরাচালান এবং অর্থপাচার কাজেও বিটকয়েনের ব্যবহার করা হয়ে থাকে বলে সন্দেহ করা হয়। সম্প্রতি কানাডার ভ্যানকুভারে বিটকয়েন এর প্রথম এটিএম মেশিন চালু হয়েছে। মাদক, চোরাচালান অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা ও অন্যান্য বেআইনি ব্যবহার ঠেকানোর জন্য যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডীয় সরকার বিটকয়েনের গ্রাহকদের নিবন্ধনের আওতায় আনার চিন্তাভাবনাও করছে।
তথ্যসূত্র: বিজনেস ইনসাইডার ও উইকিপিডিয়া

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop