বাণিজ্য সময় ট্রাম্পের পর জো বাইডেনও হতাশ করলেন মার্কিন নাগরিকদের!

১৫-০১-২০২১, ১৩:২১

হরিপদ সাহা

fb tw
ট্রাম্পের পর জো বাইডেনও হতাশ করলেন মার্কিন নাগরিকদের!
01
করোনা মহামারির ক্ষতি মোকাবিলা করে অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বহুল প্রত্যাশিত প্রণোদনা প্যাকেজের বিস্তারিত প্রথমসারির গণমাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে।
বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) রাশিয়ান গণমাধ্যম আরটির একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। যেখানে বলা হচ্ছে, জো বাইডেনের এই প্রণোদণার ঘোষণা মার্কিন রাজনীতিবিদদের জন্য আলোচনা-সমালোচনার খোরাক জুগিয়েছে। সরব হয়েছেন সাধারণ নাগরিকরাও।
দীর্ঘ লকডাউনে অনকেটা কর্মহীন ঘরবন্দি জীবনে মার্কিন নাগরিকরা যখন এ প্রণোদনায় বাড়তি স্বস্তির আশায় ছিলেন তখন, বাইডেন তার নির্বাচনী প্রচরাণায় বেকারদের জন্য জনপ্রতি ২ হাজার ডলারের এককালীন ভাতা সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিলেও তার প্যাকেজে এক হাজার ৪০০ ডলার করে বরাদ্দ রাখছেন বলে জানা গেছে।
তবে বাইডেন আশ্বাস দিয়ে বলেছেন, যাদের খুব বেশি প্রয়োজন তাদের ২ হাজার ডলার নগদ দেওয়ার বিকল্প ব্যবস্থাও রাখা হবে।
১ হাজার ৪০০ ডলারের ঘোষণায় জনমনে অসন্তোষ দেখা গেছে। কেননা, মেয়াদ শেষ হতে যাওয়া প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এরই মধ্যে ২ হাজার ডলার করে ভাতা দেওয়ার প্রস্তাব করেছিলেন। তার শেষ সময়ের এ বিতর্কিত কৌশল সমালোচনার মুখে সিনেটে নাকচ হয়। এ কারণে নাগরিকরা ভাবছিলেন, বাইডেন হয়তো ট্রাম্পের কাছাকাছি কোনো প্যাকেজ ঘোষণা করবেন। কেননা বাইডেন একসময় তার টুইটে লিখেছিলেন, ৬০০ ডলারের সহায়তা মার্কিন নাগরিকদের জন্য যথেষ্ট নয়। কারণ, তাদের ঘরভাড়া দেওয়ার পাশাপাশি খাবার খরচেরও জোগান দিতে হবে। লিওন থমাস নামের এক মার্কিন নাগরিক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে তেমনটাই বলেছেন।
থমাস বলেন, ৬০০ ডলারের সঙ্গে নতুন করে ঘোষিত ১ হাজার ৪০০ ডলার মিলে মোট ২ হাজার ডলার দেওয়া হবে কি না? তিনি আক্ষেপ করে লিখেছেন বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণের এক সপ্তাহ আগেই আমাদের হতাশ করল।
পিটার ডাও নামের আরেকজন লিখেছেন, তাহলে বাইডেন ২০০০ ডলারের পরিকল্পনা থেকে এখন ১৪০০ ডলারে নামল! এককালীন সহায়তা, মাসিক নয়! সর্বজনীন কোনো স্বাস্থ্যসেবা ঘোষণাও নেই, তার মানে জনগণকে চিকিৎসার বড় অঙ্কের ব্যয়ের বোঝা বহন করতেই হবে। 
তবে বাইডেনের প্যাকেজে সর্বনিম্ন মজুরির পরিমাণ ঘণ্টায় ১৫ ডলার করা এবং যাদের চাকরি আছে তাদের বেতনসহ ছুটির মেয়াদ বৃদ্ধির ঘোষণা আছে।
১ দশমিক ৯ ট্রিলিয়ন ডলারের প্যাকেজের ৪০০ বিলিয়ন ডলার সরাসরি করোনা সংক্রান্ত। এর মধ্যে আছে ২০ বিলিয়ন (২ হাজার কোটি ডলার) ভ্যাকসিনের জন্য, ৫০ বিলিয়ন বর্ধিত হারে করোনা টেস্টের জন্য, ১৩০ বিলিয়ন ডলার পুনরায় স্কুল খুলতে বরাদ্দ করা হয়েছে। এ পরিকল্পনায় আছে এক লাখ স্বাস্থ্যকর্মীর নিয়োগ, যারা সরাসরি ভ্যাকসিন কার্যক্রমে অংশ নেবেন।
বাইডেন বলেছেন, ১০০ দিনের মধ্যে ১০ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন বিতরণ করতে চান তিনি। তার প্যাকেজের ৩৫০ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দ রাখা হয়েছে বিভিন্ন রাজ্য ও এলাকার জন্য আর্থিক প্রণোদনা ও সহায়তা হিসেবে।      
প্রণোদনা প্যাকেজের পুরো অর্থই আসবে ঋণ হিসেবে। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয়  ঋণের পরিমাণ ২৭ ট্রিলিয়ন ডলার। কিন্তু বলা হচ্ছে যে, বর্তমানে সুদের হার অনেক কম এবং ঋণ পাওয়াও সহজ হবে।
এদিকে বাইডেনের এই প্রণোদনা প্যাকেজের বিস্তারিত প্রকাশ পাওয়া ও তা জনগণের প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় বৃহস্পতিবার মার্কিন শেয়ারবাজার ওয়ালস্ট্রিটের প্রধান সূচক ডাউ জোন্স কমে  ৬৯ পয়েন্ট বা ০.২২ শতাংশ। পয়েন্ট হারায় এসঅ্যান্ডপি-৫০০ ও নাসডাক সূচকও।  

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop