বাণিজ্য সময় করোনায় মার্চ থেকে পারিবারিক আয় কমেছে ৪ হাজার টাকা: বাণিজ্যমন্ত্রী

২৬-১১-২০২০, ১৭:২৪

সানবীর রুপল

fb tw
করোনায় মার্চ থেকে পারিবারিক আয় কমেছে ৪ হাজার টাকা: বাণিজ্যমন্ত্রী
করোনাভাইরাসের ধাক্কা লেগেছে প্রতিটি পরিবারেই। মার্চ থেকে পারিবারিক আয় কমেছে গড়ে ৪ হাজার টাকা। দ্বিতীয় ধাক্কায় অর্থনীতি সামাল দিতে এখন থেকে প্রস্তুতি নেয়ার তাগিদ দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। প্রথম দফার প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়নে ধীর গতি আছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। 
বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) রাজধানীতে এক সেমিনারে একথা বলেন মন্ত্রী।
সারাবিশ্বের অর্থনীতি লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছে করোনাভাইরাস। এর থেকে মুক্তি পায়নি বাংলাদেশেও। ২৬ মার্চ থেকে টানা ৬৬ দিনের লকডাউনে অনেকটা স্থবির অর্থনীতি। আগের অর্থবছরে ৮ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির বিপরীতে গেল অর্থবছরে (২০১৯-২০) প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৫ দশমিক ৪। এই পরিসংখ্যান বলে দেয় কতোটা গ্রাস করেছে করোনা। 
তাৎক্ষণিক টিকে থাকার যুদ্ধে ২১টি খাতের জন্য সরকার ১ লাখ ২১ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকজ ঘোষণা করে। প্যাকেজ থেকে ৩৮ লাখ শ্রমিকের বেতন সহায়তা দেয়া গেছে। ৪০ হাজার কোটি টাকার শিল্প সেবা খাতের নগদ মূলধন সহায়তার প্রায় ২৩ হাজার কোটি টাকা দেয়া হয়েছে। তবে, প্রণোদনা প্যাকেজ এসএমই খাতের জন্য বরাদ্দ ২০ হাজার কোটি টাকার মধ্যে ৪০ হাজার উদ্যোক্তা নিতে পেরেছেন ৬ হাজার ৩শ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে এখনো পর্যন্ত ৫৫ শতাংশ ব্যয় করা গেছে।
অর্থনীতিবিদ ড. নাজনীন আহমেদ বলেন, করোনা জন্য যে প্যাকেজ দিয়েছে সরকার তা দিয়ে বাংলাদেশের অর্থনীতির উপকার হয়েছে। তবে গরীব ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা ব্যাংক থেকে সহায়তা নিতে পারেন না। তাদের কাছে আর্থিক সহায়তা পৌঁছে দিতে পিকেএসএফ, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের মতো বিকল্প উপায় ব্যবহার করা উচিত। 
একই অনুষ্ঠানে সানেমের নির্বাহী পরিচালক ড. সেলিম রায়হান বলেন, প্রথম প্যাকেজের কার্যকারিতা বিবেচনা করে দ্বিতীয় প্যাকেজের চিন্তা করা যেতে পারে। দীর্ঘ মেয়াদে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াতে সহায়তা দরকার হবে।
সেমিনারে অংশ নিয়ে তৈরি পোশাক খাতের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ'র সভাপতি ড. রুবানা হক বলেন, আমরা সামনে যেতে এগিয়ে যেতে চাই। আশা করছি ২০২১ এর জুনের মধ্যে আমরা ঘুরে দাঁড়াতে পারবো। আমাদের অনেক প্রতিবন্ধকতা আছে। প্রধান রফতানি বাজারে রফতানি কমেছে আনিশ্চয়তার মধ্যে ছয় মাসের মধ্যে ঋণ পরিশোধ কঠিন হয়ে যাবে।
প্রণোদনা প্যাকেজ অর্থনীতিতে অর্থের যোগান বাড়িয়েছে, অন্য দিকে অনেকটা ঝুঁকি নিয়ে পোশাক সহ অন্যন্য কারখানা খুলে দেয়ায় অর্থনীতিতে গতি বেড়েছে। তবে, প্যাকেজ বাস্তবায়নে কর্মসংস্থান কত সৃষ্টি হয়েছে তার কোন পরিসংখ্যান নেই। 
এসময় বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা সামাল দিতে এখনি ভাবতে হবে। যেন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তরা ঋণ পান তা নিশ্চিত করতে হবে। অর্থনৈতিক এই ধাক্কা সামাল দিতে অবশ্যই কর্মসংস্থান তৈরির দিকে নজর দিতে হবে।
কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সরকারের নেয়া প্রণোদনা প্যাকেজ বিষয়ে ৩টি মত বিনিময় সভার আয়োজন করেছে অর্থমন্ত্রণালয়।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop