মহানগর সময় অনিয়মে চলছে কুমিল্লার বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিক

২২-১১-২০২০, ২২:৪১

কুমিল্লা প্রতিনিধি

fb tw
অনিয়মে চলছে কুমিল্লার বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিক
কুমিল্লার বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ক্লিনিকে অভিযান চালাচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ ও জেলা প্রশাসন। অভিযানে ৮টি প্রতিষ্ঠানকে প্রায় ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। কুমিল্লায় ক্লিনিক ব্যবসার অবস্থা ভালো না বলে জানায় বেসরকারি ক্লিনিক ও হাসপাতাল মালিক সমিতি।
কুমিল্লা নগরীর বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্যবিভাগের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে নানা অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার চিত্র উঠে এসেছে। অপারেশন থিয়েটারে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ, এনআইসিইউতে অব্যবস্থাপনা এবং সেবার অতিরিক্ত মূল্যের কারণে জরিমানা করা হয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে।
এছাড়া বিভিন্ন মাদক নিরাময় কেন্দ্র ও মানসিক হাসপাতালে পাওয়া গেছে অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ, নিম্নমানের খাবার পরিবেশনসহ নানা অনিয়ম।
কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, 'বিভিন্ন জীবনরক্ষাকারী ওষুধ এবং এনেস্থাটিক ড্রাগগুলো ছিল। সবগুলোর মেয়াদ একেবারে উত্তীর্ণ হয়ে গেছে ছয় মাস আগে।'
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দেখান নানা অজুহাত।
মা ও শিশু স্পেশালাইজড হাসপাতালের কর্মকর্তা কামরুল হাসান বলেন, 'করোনাকালীন সময় আমরা কোনো ওটি করি না। আমাদের ভুল একটাই হইছে যে, ওটিতে যে মেডিসিন এবং ব্লাড ছিল সেগুলো আমাদের সরানো দরকার ছিল।
খোদ বেসরকারি ক্লিনিক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জানান, ছোট ছোট ক্লিনিকগুলো অনিয়মে ভরা, সাধারণ মানুষ প্রতারিত হচ্ছে।
কুমিল্লা বেসরকারি ক্লিনিক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রইস আব্দুর রব বলেন, 'কুমিল্লাতে ২ থেকে ৩টা ক্লিনিক ছাড়া সমস্ত ক্লিনিকগুলো দালাল ভিত্তিক। এই ক্লিনিকগুলো বন্ধ করা উচিৎ, না হয় সাধারণ মানুষ তাদের হয়রানির শিকার হবে।'
পরিবেশ সংরক্ষণ আইনের বৈধতা না থাকায় অনেক প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নবায়ন হচ্ছে না বলে জানায় পরিবেশ অধিদপ্তর।
কুমিল্লা পরিবেশ অধিদপ্তর উপ-পরিচালক শওকত আরা কলি বলেন, 'কাগজপত্র জমা দিতে দিতে তারা অনেক সময় নেই। যথাসময়ে ছাড়পত্র দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।'
আর জেলা সিভিল সার্জন জানান, সকল বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানকেই লাইসেন্সের আওতায় আনা হবে।
কুমিল্লা সিভিল সার্জন নিয়াতুজ্জামান বলেন, ‘কোথাও কোথাও অবৈধ কেমিক্যাল রয়েছে, যেগুলোর কোনো লাইসেন্স নাই, যেখানে মান সম্মত সেবা নাই। যদি সেটা লাইসেন্সের আওতায়ও থাকে আইনগতভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
জেলায় সাড়ে ৪'শটি বেসরকারি হাসপাতাল-ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক সেন্টার লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop