Close (x)

বাণিজ্য সময় ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারি নিষ্পত্তিতে মালয়েশিয়াকে ৩ বিলিয়ন ডলার দিবে গোল্ডম্যান

২৪-১০-২০২০, ০৩:৫৫

বাণিজ্য সময় ডেস্ক

fb tw
ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারি নিষ্পত্তিতে মালয়েশিয়াকে ৩ বিলিয়ন ডলার দিবে গোল্ডম্যান
ওয়ানএমডিবি তহবিল কেলেঙ্কারি নিষ্পত্তিতে মালয়েশিয়াকে ৩ বিলিয়ন ডলার দিতে সম্মত হয়েছে নিউইয়র্ক ভিত্তিক বহুজাতিক বিনিয়োগ ব্যাংক ও আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান গোল্ডম্যান স্যাকস।
বৃটিশ গণমাধ্যম বলছে, ব্যাংকটির মালয়েশীয় সহায়ক প্রতিষ্ঠান এরই মধ্যে মার্কিন আদালতে স্বীকার করেছে যে, রাষ্ট্রায়ত্ত তহবিলে অর্থ উত্তোলনের কাজ পেতে তারা ১ বিলিয়ন ডলারেরও বেশি ঘুষ দিয়েছে।
বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) নিষ্পত্তির খবরটি নিশ্চিত করে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার মন্ত্রণালয়ের (ডিওজে) কর্মকর্তারা জানান, গোল্ডম্যান স্যাকস এমন একটি প্রকল্প এগিয়ে নিতে সহায়তা করেছে, যার কারণে অনেক ক্ষতি হয়েছে।
মার্কিন বিচার মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল ব্রায়ান র্যাবিট বলেন, এই কেলেঙ্কারির কারণে বড় আকারে ক্ষতির মুখে পড়েছে মালয়েশিয়ার সাধারণ মানুষ, যারা মনে করেছিল তাদের ভালোর জন্যই এই তহবিল গঠন করা হচ্ছে। কিন্তু এর বেশিরভাই কিছু দুর্নীতিবাজের পকেটে গিয়েছে।
এ প্রসঙ্গে মার্কিন কর্মকর্তারা বলেন, বড় আকারের দুর্নীতিতে গোল্ডম্যান স্যাকস যে কেন্দ্রীয় ভূমিকা পালন করেছে, এর মাধ্যমে তা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। অবশ্য গোল্ডম্যান নিজেদের ব্যর্থতা স্বীকার করে এটিকে প্রাতিষ্ঠানিক ব্যর্থতা হিসেবে দেখছে। 
ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারি নিষ্পত্তিতে সব মিলিয়ন প্রায় ৫ বিলিয়ন ডলার জরিমানা দিতে হয়েছে গোল্ডম্যানকে। এটা তাদের (গোল্ডম্যান স্যাকস) ২০১৯ সালের মুনাফার দুই-তৃতীয়াংশের সমান। ওই দুর্নীতির কারণে ব্যাংকটির সুনাম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ও যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নীতিনির্ধারকদের হুমকিতে পড়েছে মার্কিন এই ব্যাংকটি। 
গোল্ডম্যান স্যাকস বলছে, জরিমানার ওই অর্থ সংগ্রহে নির্বাহী পর্যায়ের কর্মকর্তাদের জন্য বরাদ্দ দেয়া প্রণোদনা থেকে ১৭ কোটি ৪০ লাখ ডলার কেটে নেয়া হবে। এর মধ্যে অবসরপ্রাপ্ত শীর্ষ নির্বাহী লয়েড ব্ল্যাংকফেইনও রয়েছেন, যার সময়কালে ওই কেলেঙ্কারির ঘটনা ঘটেছে।
এক বিবৃতিতে ব্যাংকটি জানায়, ওয়ানএমডিবি ইস্যুকে প্রাতিষ্ঠানিক ব্যর্থতা হিসেবে দেখছে পরিচালনা পর্ষদ এবং ব্যাংকটির প্রতি গ্রাহকদের যে উচ্চ ধারণা রয়েছে, তার সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলেও মনে করছে। 
মালেয়শিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত ওই তহবিল থেকে চুরি হওয়া অর্থ ও অর্থে কেনা সম্পদ, গহনা ও চিত্রকর্ম উদ্ধার করতে কয়েক বছর ধরে কাজ করে যাচ্ছে এশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের বিভিন্ন তদারকি সংস্থা। 
ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারি:
মালয়েশিয়ার সরকারি উন্নয়ন প্রকল্পে বিনিয়োগের লক্ষ্যে গড়ে তোলা তহবিল হল ওয়ানএমডিবি (ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বারহাদ)। এই তহবিল নিয়ে বিলিয়ন ডলারের জালিয়াতির ঘটনা সব মহলকে নাড়িয়ে দেয়। ওই তহবিলের অর্থ সঠিক কাজে ব্যয় না করে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকসহ তার কাছের মানুষ নিজেদের পকেটে ভরেছে বলে অভিযোগ উঠে। 
গত জুলাইয়ে সাতটি অভিযোগের সবগুলোতেই দোষী সাব্যস্ত হন সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। কোটি কোটি ডলারের ওইসব মামলার একটির রায়ে ১২ বছরের কারাদণ্ডও হয় তার। আস্থা ভঙ্গ, অর্থ পাচার ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ থেকে নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন তিনি। 
ওয়ানএমডিবি হিসেবে পরিচিত ওই রাষ্ট্রায়ত্ত তহবিলের জন্য ২০১২ ও ২০১৩ সালে সাড়ে ৬ বিলিয়ন ডলার সংগ্রহে সহায়তার সময় গোল্ডম্যান স্যাকসের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠে।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop