Close (x)

মহানগর সময় শেবাচিমে চিকিৎসককে রুমে আটকে নির্যাতন করলেন ইন্টার্নরা

২১-১০-২০২০, ০৯:৩৬

ফিরদাউস সোহাগ

fb tw
বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক চিকিৎসককে তার অফিস কক্ষে আটকে মারধর ও নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্তরা তারই ছাত্র এবং ইন্টার্ন চিকিৎসক। এ ঘটনার বিচার দাবি করেছেন বিএমএর জেলা সাধারণ সম্পাদক। ঘটনা তদন্ত করে ব্যবস্থার আশ্বাস দিয়েছেন হাসপাতাল পরিচালক।
হাসপাতালের মেডিসিন ইউনিট ৪-এর সহকারী রেজিস্ট্রার মো. মাসুদ খান তার কয়েকজন ছাত্র ও ইন্টার্ন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মারধর ও নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন। তিনি জানান, মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে তিনি রোগীদের সেবা দিচ্ছিলেন। এ সময় তাকে মোবাইল ফোনে তার অফিস কক্ষে ডেকে নেয়া হয়। সেখানে অপেক্ষায় ছিল ৮ থেকে ১০ জন। তিনি রুমে ঢুকতেই দরজা বন্ধ করে অতর্কিত মারধর শুরু করে তারা। এ সময় তিনি চিৎকার করলে মুখ বেঁধে চলে নির্যাতন। শব্দ পেয়ে অন্য চিকিৎসক ও রোগীর স্বজনরা এগিয়ে এলে হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায় হামলাকারীরা। ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সঙ্গে হাসপাতালের চিকিৎসকদের সম্পর্কে অবনতির জের ধরে এই হামলা বলে ধারণা নির্যাতিত চিকিৎসকের।
সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. মো. মাসুদ খান বলেন, ঢোকার সঙ্গে সঙ্গে আমার ওপর আক্রমণ করেন।
এ ব্যাপারে বিএমএর জেলা সাধারণ সম্পাদক বলেন, হামলার ঘটনা নিন্দনীয় ও ক্ষমার অযোগ্য।
ড. মনিরুজ্জামান শাহিন বলেন, এটা খুবই দুঃখজনক। কোনও চিকিৎসকের ওপর হামলা হলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।
এ ব্যাপারে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান হাসপাতালের পরিচালক।
শেবাচিম হাসপাতাল পরিচালক ডা. বাকির হোসেন বলেন, কী কারণে হামলা করা হয়েছে, সেটা আমরা বের করব। পরে আইনগত ব্যবস্থা নেব।
এ অবস্থায় নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ওই নির্যাতিত চিকিৎসক। নিজের নিরাপত্তা ও হামলাকারীদের সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন তিনি।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop