খেলার সময় খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক তদারকি করবেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

১৭-১০-২০২০, ১৯:০১

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিক তদারকি করবেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী
ফুটবলারদের পারিশ্রমিক ৩৫ এর বদলে ৪০ শতাংশই দেয়ার জন্য ক্লাব ও বাফুফেকে অনুরোধ করেছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল। পারিশ্রমিক নিয়ে ক্লাব-ফুটবলার-ফেডারেশনের মধ্যকার ত্রিমুখী দ্বন্দ্বের শেষ পর্যন্ত সমাধান না হলে তদারকি করবেন বলে জানালেন তিনি।
এছাড়া, ঘরোয়া ক্রিকেটে ক্রিকেটারদের চুক্তির অর্থ বাকি আছে, তা দ্রুত পরিশোধের জন্য বিসিবির নিকট আহ্বান জানিয়েছেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী।
কয়েক দফা মিটিং করেও ফুটবলারদের ন্যায্য পাওনা জোটেনি। বরাবরের মত বাফুফের সভাপতির আশ্বাসও গেছে ভেস্তে। ফেডারেশন পড়েছে উভয়সংকটে। পরিশ্রমিক সর্বোচ্চ ৩৫ শতাংশের বেশি দিতে রাজি হয়নি ক্লাবগুলো। অন্যদিকে ফুটবলারদের দাবি পারিশ্রমিকের ৪০ শতাংশ। 
১৯ নভেম্বর ফেডারেশন কাপ শুরুর আগে তিন পক্ষের সমঝোতা নিয়ে শঙ্কা তাই থেকেই যাচ্ছেন। এমন অবস্থায় এগিয়ে এলেন ক্রীড়াঙ্গনের অভিভাবক। বাফুফে ও ক্লাবগুলোকে অনুরোধ করলেন ফুটবলারদের ৪০ শতাংশ পারিশ্রমিকই পরিশোধ করতে।
ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে ক্লাবগুলো আর্থিক সমস্যায় আছে। কিন্তু তারপরও তারা চাইলে ৪০ শতাংশ পারিশ্রমিক পরিশোধ করতে পারে। আমি বাফুফের মাধ্যমে এ বিষয়টি নিষ্পত্তি করার চেষ্টা করব। কেননা ক্লাবগুলোর উপর সরাসরি আমার নিয়ন্ত্রণ নেই। তবে শেষপর্যন্ত সমাধান না হলে, সমাধানের জন্য যথাপোযুক্ত ব্যবস্থা নিব।
ঘরোয়া ক্রিকেট বন্ধ থাকায় আর্থিক সংকটে পড়েছেন ঘরোয়া ক্রিকেটাররাও। দু'দফায় বোর্ডের পক্ষ থেকে কিছু টাকা পেয়েছেন প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটাররা। তবে তাতে সংকুলান হয়নি ক্রিকেটারদের। মাত্র ১ রাউন্ড শেষে ঘরোয়া ক্রিকেটের শীর্ষ আসর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ স্থগিত হয়ে যাওয়ায় আর্থিক অসঙ্গতিতে ক্রিকেটাররা।
এরমধ্যে সময় সংবাদে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান তুষার ইমরান জানিয়েছিলেন, প্রয়োজনে বিসিবি যেন ক্রিকেটারদেরকে কিছু টাকা ধার দেয়। পরিস্থিতি যখন এমন, তখন ক্রিকেটারদেরও পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিলেন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। 
জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ক্রিকেটাররা দীর্ঘদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতে পারেনি। তাদের আয় আগের মত নেই। অনেকের চুক্তির টাকা আটকে রয়েছে। বিসিবিকে ক্রিকেটারদের আর্থিক সমস্যা সমাধানের জন্য ইতিমধ্যে জানানো হয়েছে। 
শ্যুটিং ফেডারেশন ও আর্চারি ফেডারেশন ছাড়া অন্য কোনো ফেডারেশনে অনুশীলন ক্যাম্প চলছেনা এখন। আগস্টে সীমিত পরিসরে সকল ফেডারেশনকে অনুশীলন শুরু করার নির্দেশ দিলেও করোনা পরিস্থিতিতে তা শুরু করতে পারেনি অনেকেই। তবে দ্রুতই কার্যক্রম শুরুর প্রত্যাশা ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর।
তিনি বলেন, করোনার কারণে আসলে অনুশীলন করা সম্ভব হচ্ছে না। আক্রান্ত হবার আশঙ্কা থেকে যায়। তবে এবছর সকলকে আর্থিক অনুদান দেয়া হবে।  আশা করি দ্রুতই ফেডারেশনগুলোর অনুশীলন ত্বরান্বিত হবে।
এছাড়া, মুজিবর্ষ উপলক্ষ্যে আয়োজিত বিশেষ বাংলাদেশ গেমসে উসাইন বোল্টেরর বড় মাপের একজন অ্যাথলিট আনার পরিকল্পনাও করছে মন্ত্রণালয়।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop