আন্তর্জাতিক সময় আইএস কে অর্থ সরবরাহ করেছিল ডয়েচ ব্যাংক?

২৬-০৯-২০২০, ২১:২২

আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক

fb tw
আইএস কে অর্থ সরবরাহ করেছিল ডয়েচ ব্যাংক?
২০১৪ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ইরাকের বিভিন্ন জায়গায় দায়েশ বা আইএস যে শুধু মানবতার জন্য সংকট সৃষ্টি করেছে তাই নয়, দেশটির অর্থনীতিও ধ্বংস করে দেয়। ২০১৪ সালে মসুল দখল করার মধ্যদিয়ে আইএস  ইরাকের বড় অংশ দখল করে।
ইরাকের কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানিয়েছে সে সময় কমপক্ষে ১২১টি ব্যাংকের শাখা লুট করে দায়েশ। হাতিয়ে নিয়ে প্রায় ৮৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। এ ঘটনাকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যাংক লুটের ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে এ ঘটনাকেও ছাপিয়ে আলোচনায় এসেছে অন্য এক খবর।
বলা হচ্ছে, ইরাকের এমন ঘটনার খবর জানার পরও ডয়েচ ব্যাংকের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শাখা অর্থ স্থানান্তরকে অনুমোদন করেছে।
সাম্প্রতিক আলোচিত ফিনসেন ফাইল তদন্তে ফাঁস হওয়া নথি পর্যালোচনা করে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। এ তদন্তের অংশ হিসেবে আরব রিপোর্টার্স ফর ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজম –এআরআইজে’র প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, ১৫ জুন ২০১৪ সাল থেকে ৩০ জুন ২০১৫ সাল পর্যন্ত এক বছরেরও বেশি সময় ধরে ব্যাংক অব অ্যামেরিকা এবং ডয়েচ ব্যাংকের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শাখা থেকে ইরাকের ১৩টি ব্যাংকে কমপক্ষে ৪ বিলিয়ন ডলার অর্থ স্থানান্তর করা হয়।
২০১৫ সালের ২ থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি ব্যাংক অব অ্যামেরিকা থেকে ইরাকের বিভিন্ন ব্যাংকে ৫২৪টি ব্যাংক আদেশ স্থানান্তরিত হয়,যার পরিমাণ ১৬.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। একই বছর ১৮-২০ মে পর্যন্ত ব্যাংক অব অ্যামেরিকা ২৪৪টি আদেশের মাধ্যমে পাঠায় ৪৬.৫৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।
প্রশ্ন উঠেছে, তবে কি ইরাকের সশস্ত্র গ্রুপগুলোকে অর্থ সরবরাহ করেছে ডয়েচ ব্যাংক?
লেনদেনে ঠিক কোন কোন শাখা জড়িত ছিল তা জানা না গেলও জানা গেছে, দায়েশ যখন ইরাকের বিভিন্ন ব্যাংকের শাখা দখল করে বসেছিলো সে সময়ই লেনদেনগুলো হয়েছে।
আইএস আয়ের পথ:
অর্থপাচার ও সন্ত্রাসবাদে অর্থ লেনদেন বিরোধী প্যারিস ভিত্তিক সংস্থা ‘দ্য ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স’ এর প্রতিবেদন অনুযায়ী বেশ কিছু কার্যক্রমের মাধ্যমে আইএস  অর্থ সংগ্রহ করেছে। এর মধ্যে আছে ভূমি দখল, ব্যাংক ডাকাতি, চাঁদাবাজি ও অপহরণ,তেলকূপ ও তেল শোধনাগার নিয়ন্ত্রণ, জোরপূর্বক কর আদায় ইত্যাদি।
এক নীরিক্ষায় দেখা যায়,২০১৫ সালের শেষ নাগাদ আই এস এর অর্থের পরিমাণ প্রায় আড়াই বিলিয়নে পৌঁছে। 
আইএস এর এসব কর্মকাণ্ডে ইরাকের অর্থনীতি এক প্রকার ধসে যায়। আইএমএফ  এর হিসেব অনুযায়ী, ২০১৫ সালে ইরাকের বাজেট ঘাটতি জিডিপি’র ৬ শতাংশে থেকে বেড়ে পৌঁছে ১৫ শতাংশে। আর ইরাকের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভের পরিমাণ ৬৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে কমে দাঁড়ায় ৫১ বিলিয়নে। কিন্তু প্রশ্ন হলো, এত ঝুঁকি ও অনিরাপত্তার পরও বিপুল পরিমাণ এই অর্থ ছাড় দেয়া হলো কেন? 
ওয়াশিংটন ডিসি ভিত্তিক অর্থপাচার বিরোধী সংস্থা সিএএমএস এর রস ডেলসটন এআরআইজে’কে বলেন, ব্যাংকগুলো থেকে এমন অর্থ স্থানান্তর সব সময়ই হয়ে এসেছে। তবে অবাক করা বিষয় হলো, কেউই এখন পর্যন্ত ধারনাও দিতে পারেনি যে কত শতাংশ অর্থ লেনদেনের বিষয়টি তারা বুঝতে পেরেছে।
তিনি আরো বলেন, এসব অর্থ লেনদেনের বিষয় নজরদারি করা ও অনৈতিক লেনদেন বন্ধ করা ব্যাংকেরই দায়িত্ব। এসব লেনদেন তো একা একা হয়নি। এসব খুবই সহজে বন্ধ করা যেতে কিন্তু তারা সেটা করেনি। 
ইরাকে ডয়েচ ব্যাংকের স্বার্থ কী? 
ইরাকে নানা স্বার্থসংশ্লিষ্ট কাজ করে ডয়েচ ব্যাংক।ইরাকি সরকার ও কুর্দিদের সঙ্গে তারা যুগপথ কাজ করে। ২০১৫ সালের মাঝামাঝি সাবেক প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদির সময় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তিনটি ব্যাংককে ইরাকে কার্যক্রম চালানোর অনুমোদন দেয়া হয়, এর মধ্যে ডয়েচ ব্যাংক অন্যতম। সে সময় ইরাক সরকারের বাজেট ঘাটতি মেটানোর জন্য বিপুল পরিমান বন্ড ছাড়ে ব্যাংকটি। গেল বছরও নানা উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের জন্য ব্যাংকটি থেকে বিপুল অংকের ঋণ চুক্তি করে ইরাক সরকার। শুধু তাই নয়,ইরাকের আলোচিত-সমালোচিত কুর্দিদের সঙ্গেও রয়েছে ডয়েচ ব্যাংকের আর্থিক সম্পর্ক। কুর্দিস্তানের আঞ্চলিক সরকারের সঙ্গে বিনিয়োগ ও আর্থিক লেনদেনের নানা কার্যক্রমে যুক্ত ব্যাংকটি। বিশেষ করে তেল ব্যবসা ও বিনিয়োগ শুধু নয়,আর্থিক নানা বিষয় নিয়ে পরামর্শক সেবাও দেয় ডয়েচ ব্যাংক।
সবচেয়ে সমালোচিত হয় কুর্দি বিদ্রোহী ও সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক ও আর্থিক লেনদেনের জন্য। কিন্তু প্রশ্ন হলো, এমন নানা সমালোচনার পরও কেন একটি ব্যাংকের সঙ্গে ইরাকি সরকার এতো ঘনিষ্টতা বজায় রেখে চলে? এসব প্রশ্নের উত্তর হয়তো একটি স্বাধীন কমিটি গঠন করে তদন্ত করলেই পাওয়া সম্ভব।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop