বাংলার সময় বিপদসীমার ২৫ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে তিস্তার পানি

২৪-০৯-২০২০, ১২:৪৯

সাকির হোসেন বাদল

fb tw
বিপদসীমার ২৫ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে তিস্তার পানি
গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টি ও উজানের ঢলে নীলফামারীর ডিমলায় তিস্তা নদীর পানি ব্যারাজের ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ২৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ৯টায় পানি বিপদসীমার ২৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও বর্তমানে কমে ২৫ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বলেন, অতিবৃষ্টি ও উজানের ঢলে তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় নদীর পানি বিপদসীমার ২৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয় সেটি ‍কিছুটা কমেছে। পানিবৃদ্ধি পাওয়ায় ডালিয়া তিস্তা ব্যারাজের ৪৪টি জলকপাটের সবগুলো খুলে রাখা হয়েছে।
ভোর ৬টা ও ৯টায় বিপদসীমার ২৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও সকাল সাড়ে ১১টার দিকে একটু কমে ২৫. সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ। পানি বাড়ার ফলে নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল এলাকাগুলোতে পানি প্রবেশ করেছে। এই এলাকার প্রায় চার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েন।
 
খালিশা চাপানী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়াম্যান আতাউর রহমান জানান, পানি বাড়ায় এলাকার প্রায় সাতশ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েন। তবে পানি বের হতে শুরু করেছে। নদীতে পানি কমে গেলে দুর্ভোগ কমে আসবে তাদের। একই অবস্থা পূর্ব ছাতনাই, টেপাখড়িবাড়ি, ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়নেরও।
পাউবো নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, ভারতে পানি কমতে শুরু করেছে সে হিসেবেও আমাদের এখানে পানি বাড়ার সম্ভাবনা নাই। তারপরও আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি বাঁধগুলোতে নজর রাখছি। ব্যারেজের সবকটি জলকপাট (৪৪টি) খুলে রাখা হয়েছে।
এদিকে, পানিবৃদ্ধি পাওয়ায় তিস্তা নদীবেষ্টিত বন্যা এলাকা পরিদর্শন করেছেন ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায়।
বুধবার সকাল থেকে ডালিয়ায় তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে নদীর পানি বাড়তে শুরু করে সন্ধ্যা ৬টার দিকে পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে।
ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ সূত্র জানা গেছে, অতিবৃষ্টি ও উজানের ঢলে বুধবার সকাল থেকে ডালিয়ায় তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে নদীর পানি বাড়তে শুরু করে। সন্ধ্যা ৬টায় বিপদসীমা অতিক্রম করে ১২ সেন্টিমিটার সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। রাত ৯টায় তা আরো ৮ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে ২০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।
তিস্তার পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় জেলার ডিমলা উপজেলার নদীবেষ্টিত খগাখড়িবাড়ী, পূর্বছাতনাই, টেপাখড়িবাড়ি, খালিশাচাপানী, ঝুনাগাছচাপনী, পশ্চিম ছাতনাই ইউনিয়নের ১৫টি গ্রামের প্রায় ৮ হাজার পরিবারের বসতবাড়ি পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।
ঝুনাগাছচাপানি ইউনিয়ন পরিষদের-ইউপি চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান বলেন, ছাতুনামা ভেন্ডাবাড়ী ও ফরেস্টের চরের ৫ শতাধিক পরিবারের বসতবাড়িতে বন্যার পানি ঢুকেছে। কোথাও হাঁটু থেকে কোমর পানিতে তলিয়ে গেছে।
 

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop