বাংলার সময় ওসির বিরুদ্ধে কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগ

১৫-০৮-২০২০, ১২:২৫

আলী আকবর টুটুল

fb tw
ওসির বিরুদ্ধে কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগ
সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের কটকা অভায়রণ্য কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালামের বিরুদ্ধে ১২ বছর বয়সী এক কিশোরকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।
শুক্রবার (১৪ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে নির্যাতনের শিকার ওই কিশোর ইমাম হোসেনকে বাগেরহাটের শরনখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। নির্যাতনের শিকার কিশোর ইমাম হোসেন শরণখোলা উপজেলার সোনাতলা গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে।
স্থানীয়রা জানান, ৮ আগস্ট সুন্দরবনের পাস-পারমিট নিয়ে ইলিশ আহরণকারী গ্রামবাসী ও স্বজনদের সঙ্গে সাগরে যায় সোনাতলা গ্রামের ১০ জন। এদের সঙ্গে কিশোর ইমাম হোসেনও ছিল। অবৈধভাবে অভায়রণ্য এলাকায় প্রবেশের দায়ে ওই ১০ জনকে আটক করে বন বিভাগ। পরে ১০ আগস্ট কিশোর ইমাম হোসেন ছাড়া অন্য ৯ জেলের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর আদালতে সোপর্দ করে বন বিভাগ।
কটকা অভায়রণ্য কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম কিশোর ইমাম হোসেনকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর না করে আবার বনে নিয়ে যায়। সেখানে আটকে রেখে খাবার না দিয়ে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে চারদিন পর ১৪ আগস্ট রাত সাড়ে আটটায় শরণখোলা রেঞ্জ অফিসে কিশোর ইমাম হোসেনকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে বন বিভাগ।
ইমাম হোসেনের মা মেহেরুন নেছা বেগম বলেন, যখন জানতে পারি বন বিভাগ আমার ছেলেকে আটক করেছে। পরে খোঁজ নিয়ে জানি, কটকার ওসির কাছে আমার ছেলে আছে। আমি ওসিকে ফোন দিলে বলেন তুমি এসে কটকা থেকে তোমার ছেলেকে নিয়ে যাও। তখন আমি বলি, মহিলা মানুষ, কীভাবে কটকায় আসব? শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক জয়নাল আবেদিনকে ফোন করলে তিনিও আমার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেন।
তিনি আরও বলেন, পরে আটকে রেখে মারধর ও নির্যাতন করে শরণখোলা রেঞ্জ অফিসে ফেরত দিয়ে গেছে। সেখান থেকে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও আমরা পরিবারের লোকেরা গিয়ে আমার ছেলেকে নিয়ে আসি। রাতে বাড়িতে নিয়ে আসার পরই আমার ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়ে। আমরা রাতেই আমার ছেলেকে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। আমার ছেলেকে নির্যাতনের বিচার চাই।
শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসক আরিফুল ইসলাম রাকিব বলেন, কিশোর ইমামের শরীরে আঘাতের চিহ্ন নেই। কিন্তু সে মানসিকভাবে ভীত সন্ত্রস্ত অবস্থায় রয়েছে। আমরা তাকে আরও কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা দিয়েছি। তাকে যথাযথ চিকিৎসা দেয়ার চেষ্টা করছি। ৪৮ ঘণ্টা না যাওয়া পর্যন্ত কিশোরের শারীরিক অবস্থার বিষয় তেমন কিছু বলা যাচ্ছে না।
শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসকে আব্দুল্লাহ আল সাইদ বলেন, এ বিষয়ে আমরা কিশোরের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাইনি। তবে সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক আমাকে জানিয়েছেন পরিবারের লোক না পাওয়ার কারণে চারদিন পরে সকলের উপস্থিতে ইমাম হোসেন নামের একটি শিশুকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।
এ বিষয়ে শরণখোলা রেঞ্জের কটকা অভায়রণ্য কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালামের নাম্বরে বার বার যোগাযোগ করা হলেও তার নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়।
পূর্ব সুন্দরবন বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ সকলের উপস্থিতিতে ছেলেটিকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নির্যাতনের বিষয়টি সঠিক নয়, সাজানো।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop