আন্তর্জাতিক সময় বৈরুত বিস্ফোরণে আন্তর্জাতিক তদন্ত দরকার নেই: লেবানন

১৩-০৮-২০২০, ১৩:২৮

আন্তর্জাতিক সময় ডেস্ক

fb tw
বৈরুত বিস্ফোরণে আন্তর্জাতিক তদন্ত দরকার নেই: লেবানন
লেবাননের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আইন ও বিচার মন্ত্রী মেরি ক্লড নাজেম বলেছেন, সম্প্রতি বৈরুত বন্দরে যে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটেছে সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক তদন্তের প্রয়োজন নেই। তিনি বলেন, লেবাননের বিচার বিভাগই তদন্ত করার জন্য যথেষ্ট।
মন্ত্রী মেরি ক্লড নাজেম বলেন, গত ৪ আগস্টের বিস্ফোরণ লেবাননের বিচার বিভাগের সক্ষমতা প্রমাণের জন্য একটি সুযোগ এবং এতে তারা জনগণের সমর্থন লাভ করবে। আল-জাজিরা টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।
নাজেম বলেন, জনগণের চাপ ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের কারণে সম্ভবত তদন্ত সঠিকভাবে এগিয়ে যাবে।
 
আন্তর্জাতিক তদন্তের বিষয়টি নাকচ করে লেবাননের এ নারী রাজনীতিক বলেন, 'আমি সবসময় লেবাননের বিচার বিভাগের ওপর আস্থা রাখতে চাই এবং আমি এমন কোন ব্যবস্থা তৈরি করতে চাই না যে, নতুন কোনো গুরুত্বপূর্ণ কিছু হলেই আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দ্বারস্থ হতে হবে। আমরা আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ ব্যবহার করতে পারি কিন্তু আমি চাই আমাদের দেশের বিচার বিভাগ উন্নত হোক।'
গত ৪ আগস্ট বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণে অন্তত ১২৫ জন নিহত ও পাঁচ হাজারের বেশি আহত হয়েছে। এ ঘটনায় ফ্রান্স আন্তর্জাতিক তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে। লেবানন এক সময় ফ্রান্সের উপনিবেশ ছিল এবং লেবাননে বহু ফরাসি নাগরিকের বসবাস রয়েছে।
এদিকে, বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণের এক সপ্তাহ পরও শোকে মুহ্যমান লেবানন। দুর্ঘটনায় মৃত্যুকে হত্যা বলে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন সাধারণ মানুষ। বিস্ফোরণের স্বচ্ছ তদন্তের দাবিতে, পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এদিকে লেবাননে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রয়োজনীয় সাহয্যের জন্য আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ।
এক সপ্তাহ আগের এ দুর্ঘটনা বদলে দিয়েছে শত শত মানুষের জীবন। গত মঙ্গলবার লেবাননের বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে তছনছ হয়ে গেছে অনেকগুলো পরিবার। হতাহতদের প্রতি তাই এ সার্বজনীন শ্রদ্ধা। বৈরুতের বিস্ফোরণস্থলে হাজির হন হাজারো মানুষের র‌্যালি। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন অনেকে। অনুষ্ঠানে নিহতদের নাম পড়ে শোনানো হয়। দুর্ঘটনার জন্য সরকারকে দায়ী করে ক্ষোভ জানান তারা।
স্মরণ অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার পাশাপাশি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ান বিক্ষোভকারীরা। সোমবার সকাল থেকেই পার্লামেন্ট ভবনের বাইরে জড়ো হন বহু প্রতিবাদকারী। এ সময় নিরাপত্তা বাহিনী তাদের বাধা দিলে, শুরু হয় সংঘর্ষ। লাঠিপেটার জবাবে আন্দোলনকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল এবং আতশবাজি ছোঁড়ে।
এ অবস্থায় আবারো সব পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সংস্থা মুখপাত্র জেনস লার্কে।
 

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop