প্রবাসে সময় মালয়েশিয়ায় সেই বাংলাদেশির পাশে দাঁড়িয়েছে সুশীল সমাজ, উদ্বেগ প্রকাশ

০৮-০৭-২০২০, ১৯:৫২

মোহাম্মদ আবদুল কাদের

fb tw
মালয়েশিয়ায় সেই বাংলাদেশির পাশে দাঁড়িয়েছে সুশীল সমাজ, উদ্বেগ প্রকাশ
মালয়েশিয়ায় কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরাকে সাক্ষাৎকার দেয়া বাংলাদেশিকে ঘিরে দেশটির প্রশাসনের সমন জারির পর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সেখানকার সুশীল সমাজ।
করোনা ভাইরাস বিস্তার সৃষ্ট সংকট মোকাবেলায় দেশটিতে থাকা অবৈধ অভিবাসীদের বিষয়ে আল-জাজিরাকে সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন বাংলাদেশি মো. রায়হান কবির (২৫)। এ ঘটনা রায়হান কবিরের ব্যক্তিগত তথ্য চেয়ে সমন জারি ও পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে স্থানীয় প্র্রশাসন।
তাকে ধরিয়ে দিতে এরই মধ্যে দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ ও পুলিশের আইজি সকলের সহযোগিতা চেয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি প্রকাশ করেছেন।
মালয়েশিয়ার জাতীয় বার্তা সংস্থা বারনামা জানিয়েছে, একটি সাংবাদিক সংগঠনের পক্ষ থেকেও মালয়েশিয়ান অভিবাসন বিভাগের এই পদক্ষেপের সমালোচনা করা হয়েছে।
দ্য সেন্টার ফর ইন্ডিপেন্ডেন্ট জার্নালিজম (সিআইজে) বুধবার (৮ জুলাই) এক বিবৃতিতে বলেছে, ওই ঘটনার পর বিদেশি শ্রমিকদের প্রতি স্থানীয় নাগরিকদের হিংসা বাড়ছে। মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগের পদক্ষেপকে স্বাধীন সাংবাদিকতার সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলেও মন্তব্য করেছে সিআইজে।
মালয়েশিয়ার নাগরিক সমাজ সংস্থা নামের একটি সংগঠন তাদের বিবৃতিতে বলেছে, সরকারের এমন পদক্ষেপ বাংলাদেশিসহ অন্য অভিবাসীদের ব্যক্তিগত ক্ষতির কারণ হতে পারে। এটি সামাজিক আতঙ্ক সৃষ্টি করে অভিবাসীদের হয়রানির মতো ঘটনায় রূপ নিতে পারে।
রায়হানের মন্তব্য, করোনাকালীন সময়ে ইমিগ্রেশন পুলিশের ধরপাকড় চলাকালীন নিজ চোখে যা দেখেছি তাই উপস্থাপন করেছি আল-জাজিরায়। অবৈধ শ্রমিকরাতো খুনি বা সন্ত্রাসী নয়। শুধু কাগজপত্রহীন অভিবাসী। আমিতো তাদের পক্ষ হয়ে সাক্ষাৎকার দিয়েছি। তাতে কি আমার অন্যায় হয়ে গেছে?
আল-জাজিরার ‘লকডআপ ইন মালয়েশিয়া লকডডাউন’ শিরোনামে ২৫ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের একটি প্রতিবেদনে করোনায় অবৈধ অভিবাসীদের সাথে কেমন আচরণ করা হচ্ছে তা নিয়ে কথা বলেছিলেন তিনি।
প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর মালয়েশিয়ায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। মালয়েশিয়া সরকার বিষয়টি সরাসরি অস্বীকার করে এবং আল-জাজিরাকে প্রমাণ উপস্থাপনের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেয় দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী।
গত ৩ জুলাই আল-জাজিরার ইংরেজি অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর থেকে দেশটির স্থানীয় নাগরিকও কঠোর সমালোচনা করেছে।
ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, মালয়েশিয়া সরকার মুভমেন্ট কনট্রোল অর্ডারে (এমসিও) মাধ্যমে দেশটিতে অবৈধ প্রবাসীরা মহামারি করোনাকালীন বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার হচ্ছেন।
এখন মালয়েশিয়া প্রবাসি ওই যুবক রায়হান কবিরকে খোঁজার জন্য স্থানীয় গণমাধ্যমসহ মালয়েশিয়ার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে রায়হান কবিরের খোঁজ দিতে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন পুলিশের অফিসিয়াল পেজে সাধারণ জনগণের সহোযোগিতা কামনা করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।
দেশটির পুলিশের এক মুখপাত্র জানান, আন্তর্জাতিক নিউজ এজেন্সিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে অভিযোগ করা হয়েছে যে, মালয়েশিয়া অবৈধ অভিবাসীদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ করেছে আর এরই প্রেক্ষিতে পিডিআরএম (মালয়েশিয়া রয়েল পুলিশ) এই বিষয়ে আরও তদন্তে নেমেছে।
এদিকে, দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি বিন ইয়াকুব আল জাজিরাকে মালয়েশিয়ার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগকে প্রমাণ করার চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন।
এছাড়াও ভ্রান্ত ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রকাশ করার জন্য আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা আল-জাজিরাকে মালয়েশিয়ার কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop