খেলার সময় দর্শকবিহীন গ্যালারিতে টেস্ট সিরিজ ক্রিকেটারদের স্নায়ুর পরীক্ষা : স্টুয়ার্ট ব্রড

৩০-০৬-২০২০, ০৩:৫৩

নোমান আবদুল্লাহ

fb tw
দর্শকবিহীন গ্যালারিতে টেস্ট সিরিজ ক্রিকেটারদের স্নায়ুর পরীক্ষা : স্টুয়ার্ট ব্রড
দর্শকবিহীন গ্যালারিতে শুরু হতে যাওয়া টেস্ট সিরিজে ক্রিকেটারদের স্নায়ুর পরীক্ষা হবে। মনে করেন ইংলিশ পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড। এরইমধ্যে দলীয় মনোবিদের দ্বারস্থ হয়েছেন বলেও জানিয়েছেন ব্রড। দীর্ঘদিন পর ম্যাচ খেলতে নামায়, ক্রিকেটারদের ইনজুরিতে পড়ার শঙ্কাও বেশি থাকবে বলে মনে করেন ইংলিশ পেসার। এই আশঙ্কায় উইন্ডিজদের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে দেখা যাবেনা ব্রডকেও।
ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের মাধ্যমে দীর্ঘ চার মাসের খরা কাটছে। ক্রিকেটাররা ফিরেছেন অনুশীলনে। বাইশ গজের লড়াইয়ে নামার অপেক্ষা আর সপ্তাহখানেকের।
অন্যান্য ইভেন্টের মতোই, দর্শকের সমারোহ, উৎসাহী চিৎকারে মুখর থাকে ক্রিকেটের গ্যালারিও। আর যুগ যুগ ধরে তাতেই অভ্যস্ত ক্রিকেটাররা। তবে করোনা এবার বাধ সেধেছে। মহামারী ভাইরাসের হুমকির মুখে ক্রিকেট গড়াচ্ছে দর্শকবিহীন গ্যালারিতে। এই গ্রীষ্মে ঘরের মাঠে ৬টি টেস্ট খেলবে ইংলিশরা। সবগুলোই হবে রূদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে। অবস্থা যখন এমন, ক্রিকেটাররাও তাতে স্বস্তি পাচ্ছেন কই?
ইংল্যান্ডের পেসার স্টুয়ার্ট ব্রড জানান, দর্শক ছাড়া খেলা অবশ্যই পুরোপুরি আলাদা হবে। দর্শক মাঠে থাকলে প্রতিপক্ষকে চেপে ধরার জন্য আলাদা একটা শক্তি পাই আমরা। সেটা এখন আর হবে না। আমার মনে হয়, ক্রিকেটারদেরকে অনেক বেশি মানসিক শক্তির পরীক্ষা দিতে হবে। এই বিষয়ে দলের সবাই সচেতনও আছে। আমিও এরইমধ্যে দলীয় মনোবিদ ডেভিড ইয়াংয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। সম্পূর্ণ নতুন এই পরিস্থিতির সঙ্গে কিভাবে মানিয়ে নেয়া যায় সেই চেষ্টা করছি।
দীর্ঘ দিন পর মাঠে ফিরছে ক্রিকেটাররা। ঘরে বসে নিজ দায়িত্বে অনুশীলন করেছেন প্রায় সবাই। তারপরও ফিটনেসে ঘাটতি থেকে যেতে পারে। তাতে ইনজুরিতে পড়ার শঙ্কাও বাড়ে।
ব্রড জানান, হ্যাঁ! এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। আপনাকে অবশ্যই ফিটনেসের কথা ভাবতে হবে। সবাই নিশ্চয়ই চেষ্টা করেছে নিজেদেরকে ঠিক রাখতে। তারপরও ইনজুরির আশঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না।
ফর্মে থাকা সত্ত্বেও, উইন্ডিজদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে নামা হচ্ছেনা ব্রডের। নির্বাচকদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার অংশ হিসেবে সুযোগ মিলতে পারে নতুন পেসারদের। যদিও বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবেই নিচ্ছেন ব্রড।
ব্রড আরও জানান, দেখুন, সবসময়ই চাই ইংল্যান্ডের হয়ে খেলতে। খেলা মিস করতে আমি পছন্দ করি না। অন্য যে কোন সময়ের চেয়ে আমার বর্তমান ফিটনেস ভালো, আমার ফর্ম ভালো। তারপরও নির্বাচকরা দেশের ক্রিকেটের জন্য ভালো কিছুই চাচ্ছে। আমার সঙ্গে তাদের কথা হয়েছে। আমিও তাদের সঙ্গে একমত হয়েছি।
২০১২ সালের পর এই প্রথম ইংল্যান্ডের হয়ে কোন টেস্ট ম্যাচে খেলা হচ্ছে না স্টুয়ার্ট ব্রডের।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop