মহানগর সময় 'এত কথা বলতে গেলে তো আমাকে খেয়ে ফেলবে'

০৪-০৬-২০২০, ১৪:৩৭

ওমর ফারুক

fb tw
অব্যবস্থাপনার কারণে সচেতন হয়েও স্বাস্থ্যবিধি রক্ষা করতে পারছেন না রাজধানীর কয়েকটি রুটের গণপরিবহন যাত্রীরা। অন্যদিকে পরিবহন শ্রমিকরা অভিযোগ করেছেন, এই মহামারীর সময়েও শ্রমিককল্যাণের নামে চাঁদাবাজি চলছে।
ব্যক্তিগত সুরক্ষা উপকরণ পিপিই পরে এসেও শেষ রক্ষা হবে কি না সেই সন্দেহ রাজধানীর শনির আখড়া এলাকা থেকে অফিসগামী অনেকের। শুধু উঠতে নামতে নয়, কোন কোন বাসের ভেতরেও দেখা গেল অনিয়ম। বিউম্যান হলার আর সিএনজি চালিত অটোরিকশাতেও স্বাস্থ্যবিধি যেন বিলাসিতার নাম।
কয়েকজন পরিবহন শ্রমিক যেচে এসে জানালেন, মহামারীর সময়েও দূরপাল্লার বাসগুলোকে শ্রমিক কল্যাণ তহবিলের নামে অবৈধ চাঁদা গুণতে হচ্ছে।
নাম পরিচয় গোপনের শর্তে এক শ্রমিক জানালেন, গাবতলী বাসটার্মিনাল এলাকাতেও বাস ও ট্রাক থেকে নিয়মিত চাঁদা তোলা হচ্ছে।
নাম পরিচয় গোপনের শর্তে সেই শ্রমিক বলেন, এত কথা বলতে গেলে তো আমাকে খেয়ে ফেলবে।  
চাঁদাবাজি অপরাধ হিসেবে কতটা গুরুতর তার নমুনা মিললো এ নিয়ে বিআরটিএর ভ্রাম্যমাণ আদালতের উত্তরে।
বিআরটিএ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারাহ সাদিয়া তাজনীন বলেন, এ ব্যাপারে আমাদের সিনিয়ররা বলতে পারবে। মোবাইল কোর্টে আমরা এখনও এই জিনিস পাইনি।
গণপরিবহন চালুর পরের চার দিনেই কোন কোন রুটে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ নিয়মিত পাওয়া যাচ্ছে।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop