বাণিজ্য সময় ‘এনবিআরকে দেয়া রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অবাস্তব’

৩০-০৫-২০২০, ১৪:০৫

হাজেরা শিউলি

fb tw
‘এনবিআরকে দেয়া রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা অবাস্তব’
প্রস্তাবিত বাজেটে ৩ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা দেয়া হচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে। করোনাকালীন অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে এই লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবসম্মত নয় বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা।
অভ্যন্তরীণ বাণিজ্যে গতি না ফিরলে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন কঠিন হবে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরাও। এবারের বাজেটে বড় কোনো পরিবর্তন না আসলেও কর্পোরেট কর কমা এবং ব্যক্তি শ্রেণীর করমুক্ত আয়সীমাও কিছুটা বাড়ার আভাস পাওয়া গেছে।
কোভিড উনিশে থমকে গেছে অর্থনীতির চাকা। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে এনবিআরের রাজস্ব আয়ে। চলতি অর্থবছরের এপ্রিল পর্যন্ত ১০ মাসে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন থেকে ৪২ হাজার কোটি টাকা পিছিয়ে আছে এনবিআর। সাধারণত শেষ দুই মাসে বেশি রাজস্ব আসলেও করোনার কারণে এবার অর্থবছর শেষে মূল লক্ষ্যমাত্রা থেকে ঘাটতি এক লাখে দাঁড়াবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
ফলে কোনো সুখবর না থাকলেও ২০২০-২১ অর্থ বছরে ৩ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা দেয়া অযৌক্তিক মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা।
অর্থনীতিবিদ গোলাম মোয়াজ্জেম বলেন, 'যেহেতু সম্পদের চাহিদা প্রতিনিয়ত থাকবে সুতরাং চাহিদার নিরিক্ষে যদি যোগান সময়মত না হয়, তাহলে সব ঝুঁকির মধ্য পড়ে যাওয়ার সংকটে পড়তে পারে।'
আমদানি-রপ্তানিসহ সার্বিক অর্থনীতিতে ছন্দপতনের কারণে কর্মসংস্থান বাড়ানো ও বিনিয়োগ আকর্ষণে কর্পোরেট কর কমানোর পাশাপাশি কর কাঠামোর পুনর্মূল্যায়ন চান ব্যবসায়ীরা।
এফবিসিসিআই সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, 'এই বাজেটটা সেভাবে হওয়া উচিত যাতে আমাদের কারেকশন কম করতে হয়। জানি না এই করোনা ভাইরাস কবে যাবে। আমাদের ব্যবসা বাণিজ্য যদি স্বাভাবিক গতিতে ফেরত না আসে প্রতিটি সেক্টরে কিন্তু অর্থনৈতিক প্রভাবটা থাকবে।'
অতিরিক্ত রাজস্ব আহরণের চাপ কমাতে যাচাই বাছাই করে গুরুত্বপূর্ণ খাতে রপ্তানি প্রণোদনা দেয়া এবং রাজস্ব ব্যয় যৌক্তিক করার পরামর্শ অর্থনীতিবিদের।
অর্থনীতিবিদ গোলাম মোয়াজ্জেম বলেন, 'অন্যান্য অর্থবছরে অযাচিত কিছু খাতকে যেমন ইনসেনটিভ সুবিধা দেওয়া হয়। এরজন্য প্রয়োজনীয় খাতে অর্থের টান পড়তে পারে।'
চলতি অর্থবছরে এনবিআর'র রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা ৩ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা। পরে সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ৩ লাখ ৫শ' কোটি টাকা। ১০ মাসে আদায় হয়েছে ১ লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকা।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop