খেলার সময় পথে পথে এখন খাবার বিক্রি করেন যে ফুটবলার

৩০-০৫-২০২০, ০৩:২৮

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
পথে পথে এখন খাবার বিক্রি করেন যে ফুটবলার
মিশরের দ্বিতীয় বিভাগীয় ফুটবল ক্লাব বেনি সুয়েফে খেলেন ম্যাহরুস মাহমুদ। করোনার কারণে খেলা না থাকায় বন্ধ আছে তার আয়ের প্রধান উৎস। তাই পরিবারের জীবিকা নির্বাহের জন্য আপাতত বেছে নিয়েছেন ভিন্ন পথ।
সপ্তাহে দুদিন নির্মাণ কাজ করেন আর বাকি দিনগুলোয় রাস্তার পাশে দোকানে খাবার বিক্রি করে চলে তার ছোট্ট সংসার। আদর্শ হিসেবে মানেন লিভারপুল ডিফেন্ডার ভার্জিল ভ্যান ডাইককে। স্বপ্ন দেখেন আরো এগিয়ে যাওয়ার।
ম্যাহরুস মাহমুদ। একজন পেশাদার ফুটবলার। ডিফেন্ডার হিসেবে খেলেন মিশরের দ্বিতীয় বিভাগীয় ফুটবল ক্লাব বেনি সুয়েফে। অন্য সময় হলে বছরের এ সময়টায় মাঠে খেলায় মেতে থাকতেন ম্যাহরুস। কিন্তু এক করোনা ভাইরাস এসে লণ্ডভণ্ড করে দিয়েছে সব।
ক্লাবে খেলা চলাকালে প্রতি মাসে ম্যাহরুসের পারিশ্রমিক মিলতো ২০০ ডলার। কিন্তু এখন খেলা না থাকায়, বন্ধ আছে উপার্জনের প্রধান উৎস। তাই পেশা হিসেবে ম্যাহরুস বেছে নিয়েছিলেন দালান নির্মাণের কাজ। যেখান থেকে দিনপ্রতি আসতো ৭ ডলার করে। যা খুবই স্বল্প। সেটাও আপাতত বন্ধ। তাই শেষপর্যন্ত খাবার তৈরি করে রাস্তায় বিক্রি করতে বাধ্য হয়েছেন এই ফুটবলার। স্থানীয় মিষ্টান্ন কোনাফা, কাতায়েফসহ আরো বিভিন্ন ধরনের মজার সব স্থানীয় খাবার তৈরি করে রাস্তার পাশে ছোট্ট দোকান দিয়ে বসেছেন ম্যাহরুস। আয় করছেন পরিবারের জীবিকা নির্বাহের অর্থ।
ম্যাহরুস মাহমুদ বলেন, 'আমি বর্তমানে বেনি সুয়েফের হয়ে দ্বিতীয় বিভাগীয় পেশাদার লিগে খেলি। কিন্তু করোনার কারণে এখন খেলা বন্ধ থাকায় আমি কাজ করা শুরু করেছি। মূলত আমি দালান নির্মাণের কাজ বেশি করে থাকি। কিন্তু এখন তেমন কোন কাজ না থাকায় খাবার তৈরি করে রাস্তায় বিক্রি করছি। যাতে করে আমার পরিবারকে, আমার বাবা-মাকে সাহায্য করতে পারি।''
ম্যাহরুস থাকেন ম্যানফেলাতে। যা কায়রো থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে। তারপরও পরিবারের কথা চিন্তা করে তার এ অক্লান্ত পরিশ্রম। তার বিশ্বাস, খুব শিগগিরই সুস্থ হবে পৃথিবী, মাঠে ফিরবে খেলা। সেই সঙ্গে ফিরবে তার পরিবারের ভাগ্য।
তিনি আরো বলেন,আসলে কিছুই বলা যাচ্ছেনা কি লেখা আছে আমাদের ভাগ্যে। তবে, সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা একটাই, তিনি জেনো খুব শিগগিরই সব ঠিক করে দেন। আবার জেনো আমরা আমাদের খেলায় ফিরতে পারি।'
লিগে নিজ ক্লাব বেনি সুয়েফকে শীর্ষে পৌছাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন ম্যাহরুস। আদর্শ হিসেবে মানেন লিভারপুল ডিফেন্ডার ভার্জিল ভ্যান ডাইককে। স্বপ্ন দেখেন মিশরের প্রথম বিভাগ ফুটবলে খেলার পাশাপাশি জাতীয় দলে খেলার।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop