স্বাস্থ্য বন্ধ হচ্ছে সূর্যের হাসি ক্লিনিক

১৪-০৫-২০২০, ২২:১৫

স্বাস্থ্য সময় ডেস্ক

fb tw
বন্ধ হচ্ছে সূর্যের হাসি ক্লিনিক
করোনাভাইরাস বিপর্যয়ে দেশে চলছে অঘোষিত লকডাউন। দেশের এই ক্রান্তিকালে তৃণমূল পর্যায়ে দরিদ্রদের স্বল্পমূল্যে স্বাস্থ্যসেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান সূর্যের হাসি ক্লিনিক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। 
আগামী ৩০ জুন থেকে ক্লিনিকগুলো বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন সূর্যের হাসি নেটওয়ার্কের মানবসম্পদ বিভাগের প্রধান মুশফিকুল আজম।
তিনি জানান, ফরিদপুর জেলার ৩টিসহ দেশের ১৫৮টি ক্লিনিক বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সূর্যের হাসি নেটওয়ার্ক। এতে করে স্বল্পমূল্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা সেবা থেকে বঞ্চিত হবে মানুষ। আর বেকার হবে ক্লিনিকটির হাজার হাজার কর্মী।
১৯৯৭ সাল থেকে ৬৪টি জেলায় ৩৯৯টি ক্লিনিক দাতা সংস্থা ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে সূর্যের হাসি ক্লিনিক নামে সরকারের সহযোগী সংস্থা হিসেবে তৃণমূলের প্রায় তিন কোটি মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান করে আসছিল ২৫ টি এনজিও’র মাধ্যমে।
২০১৮ সাল থেকে এনজিওগুলোকে বিলুপ্ত করে ৩৯৯টি ক্লিনিকের মধ্যে ৩৬৯টি ক্লিনিক নিয়ে সূর্যের হাসি নেটওর্য়াক দায়িত্ব গ্রহণ করে।
শুরুতে সূর্যের হাসি নেটওর্য়াক সকল স্টাফকে চাকরি স্থায়ীকরণসহ প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি, স্বাস্থ্য বিমা ইত্যাদির প্রলোভন দেখিয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের মাধ্যমে কোম্পানিতে রূপান্তরিত করে।
পরবর্তীতে সবার অগোচরে কর্মসূচি টেকসই করার নামে ২৫টি ক্লিনিক স্থায়ীভাবে বন্ধ এবং ৫১টি ক্লিনিককে নামে মাত্র স্যাটেলাইট ক্লিনিকে রূপান্তর করে অন্য ক্লিনিকের সাথে অঙ্গীভূত করে মোট ৭৬টি ক্লিনিককে বন্ধ করে দেয়।
সম্প্রতি জানা যায়, এ বছরের ৩০ জুনের পর ১৩৪টি ক্লিনিক রেখে ৯০টি ক্লিনিক স্থায়ীভাবে বন্ধ এবং ৬৯টি ক্লিনিককে নামে মাত্র স্যাটেলাইট ক্লিনিকে রূপান্তর করে অন্য ক্লিনিকের সাথে অঙ্গীভুত করে আরো ১৫৮টি ক্লিনিককে বন্ধ করার মৌখিক আদেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এভাবে মোট ২৩৫টি ক্লিনিক বন্ধ করা হচ্ছে।  
এরই ধারাবাহিকতায় ফরিদপুর জেলায় ৩টি ক্লিনিকের মধ্যে আলফাডাঙ্গা, বোয়ালমারী, মধুখালী ক্লিনিককে বন্ধ করার মৌখিক আদেশ দেয়া হয়।
ক্লিনিক ব্যবস্থাপকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সূর্যের হাসি ক্লিনিকে স্বল্পমূল্যে মাতৃত্ব ও গর্ভকালীন সেবা, শিশু স্বাস্থ্য, বিনামূল্যে টিকাদান কর্মসূচি, পরিবার পরিকল্পনা সেবা, স্বল্পমূল্যে প্যাথলজি পরীক্ষা, স্বল্পমূল্যে ভ্যাক্সিনেশন সেবা দেয়া হয়ে থাকে। বন্ধ হয়ে গেলে তৃণমূলের মানুষ স্বল্পমূল্যের এসব সেবা থেকে বঞ্চিত হবে।
ক্লিনিক বন্ধের বিষয়ে ফরিদপুর জেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা  সর্দার মো. হান্নান বলেন, ‘ক্লিনিকগুলো বন্ধ হলে তৃণমূলের স্বাস্থ্য সেবায় আমাদের সাময়িক সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। যেহেতু তাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ক্লিনিকগুলো বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাই আমরা শূন্যস্থান পূরণে চেষ্টা করবো। তৃণমূলে লোকবল নিয়োগের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।’  

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop