অন্যান্য সময় দুই হাজার বছর আগে করোনা নিয়ে তুর্কি ক্যালেন্ডারের ভবিষ্যৎদ্বাণী

২৬-০৩-২০২০, ১৮:১৫

অন্যান্য সময় ডেস্ক

fb tw
দুই হাজার বছর আগে করোনা নিয়ে তুর্কি ক্যালেন্ডারের ভবিষ্যৎদ্বাণী
২০০০ বছর আগেই নাকি করোনাভাইরাসের কথা বলে গিয়েছিলেন তুর্কি জ্যোতিষবিদরা। সেখানে বলা হয় ২০২০ সালে গোটা পৃথিবী যে মহামারীর কবলে পড়বে, সেই পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে প্রাচীন তুর্কি ক্যালেন্ডারে। করোনা ছাড়াও আরও কিছু বিপর্যয়ের কথা উল্লেখ করা হয়েছিল সে ক্যালেন্ডারে। ২০২০ সালে ভয়াবহ আগুন ও ভূমিকম্প হতে পারে সে আভাসও মেলে ক্যালেন্ডারে। ভয়াবহ আগুন বলতে অস্ট্রেলিয়ার দাবানলের কথা বলা উঠে আসছে অনেকের মুখে।
তুর্কির গণমাধ্যম দ্যা ডেইলি সাবাহ উঠে এসেছে এসব তথ্য। সেখানে বলা হয়েছে ক্যালেন্ডারে, মোট ১২ রকমের প্রাণী দিয়ে ঘোরানো, যেখানে প্রতি বছরে প্রতিনিধিত্ব করে একটি করে প্রাণী। ঘোরানোভাবে বছরের নামগুলি যে প্রাণীর চিহ্ন হিসেবে দেখানো হয়েছে সে প্রাণীগুলো হলো ইঁদুর, গরু, বাঘ, খরগোশ, মাছ, সাপ, ঘোড়া, ভেড়া, বানর, মুরগী, কুকুর এবং শূকর। ২০২০ সালে ক্যালেন্ডারে ইঁদুরের বছর হিসাবে বলা হয়েছে তার্কিশ ঐ ক্যালেন্ডারে।
পূর্ব তুরস্কের এরজুরুম প্রদেশের ইতিহাস গবেষক ওউজাহান টার্ক মাহমুদ কাশগরির এবং আব্রাহিম হাক্কে এরজুরুমির প্রাচীন তুর্কি এবং অন্যান্য সভ্যতা দ্বারা ব্যবহৃত ক্যালেন্ডারের ভবিষ্যদ্বাণী অধ্যয়ন করেছিলেন।। টার্ক বলেছিলেন যে ক্যালেন্ডারে ভবিষ্যদ্বাণীগুলি আকর্ষণীয় ইঙ্গিত দেয় যে, ২০২০ সালের অনেক পূর্বাভাস সত্য হয়েছে, ইরানে পঙ্গপালের ঝাঁক, অস্ট্রেলিয়ার ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ধ্বংসাত্মক ভূমিকম্প এবং করোনাভাইরাস মহামারী।
গবেষক ইঙ্গিত করেছিলেন যে ইঁদুরের বছরের পূর্বাভাস দেওয়া বেশিরভাগ ঘটনা ২০২০ সালের গোড়ার দিকে হয়েছিল, তবে ক্যালেন্ডারে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে যে উত্তর-পশ্চিম আফ্রিকার আশেপাশে এবং এর আশেপাশে ঘটে যাওয়া দুরাচরণের কারণে রক্তক্ষয় হবে। বৃষ্টি ও শিলাবৃষ্টি এবং লুটপাটের ফলে অনেকগুলি স্থান ক্ষতিগ্রস্থ হবে এবং বছরের দ্বিতীয়ার্ধে পাথর ছোঁড়া ও চুরি বৃদ্ধি পাবে। তিনি আরও বলেছিলেন, 'যেহেতু আমরা বসন্তের মাসগুলিতে আছি, তাই আমরা ২০২০ সালের জন্য পঙ্গপাল আক্রমণ ও ভাইরাসের কল্পনা করার পরেও বৃষ্টি ও শিলাবৃষ্টির মুখোমুখি হতে পারি।'
টার্কের মতে, একটি করোনভাইরাস জাতীয় মহামারী, ক্যালেন্ডারে "জাটালসেনব" (প্লুরিটিস) নামে পরিচিত, এর লক্ষণ হিসেবে বলা হয়েছে জ্বর, সর্দি, কাশি, অস্থিরতা এবং শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা।  যে সব উপসর্গগুলি বেদনাদায়ক হয়ে আস্তে আস্তে মৃত্যুর দিকে ধাবিত করে। তবে আশার কথাও শোনান তিনি, এ রোগের প্রকোপ থেকে রক্ষা পেতে বা প্রতিষেধক হিসেবে 'উদী হিন্দি' উদ্ভিদ নামের কথা বলা হয়। যা কুষ্টি বহরি নামেও পরিচিত।
stay home stay safe
টার্ক জানিয়েছিলেন যে ক্যালেন্ডারে অন্তর্ভুক্ত তথ্যগুলি সেই সময় যারা বাস করেছিলেন তাদের অভিজ্ঞতা হস্তান্তর করার একটি পদ্ধতি যা জোর দিয়েছিল যে এই ক্যালেন্ডারগুলি সত্যই ভবিষ্যদ্বাণী, ভাগ্য বলার বা ডুমসডের ভবিষ্যদ্বাণী নয়। তিনি বলেছিলেন যে তারা তথ্য এবং বারবার অভিজ্ঞতা নিয়ে গঠিত যাতে লোকদের অবহিত করা যায় এবং সতর্কতা অবলম্বন করা যায়। “যেহেতু আমাদের দেশে পুরাতন উত্সগুলি নিয়ে গবেষণা ও পড়ার সংস্কৃতি হ্রাস পেয়েছে, যখন কেউ ইউরোপের একটি সূর্যসেবক ডেকে এই জাতীয় ঘটনার উল্লেখ করে, তখন সে যা বলে তা এজেন্ডার একটি বর্তমান বিষয় হয়ে ওঠে এবং তার কথাটি কৌতূহল হিসাবে পরিণত হয়। তবে, প্রাচীন ব্যক্তিরা দীর্ঘকাল এই পঞ্জিকা অনুসারে তাদের জীবন গঠন করেছিলেন, ”তিনি উপসংহারে বলেছিলেন।
উল্লেখ্য গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথমবারের মতো শনাক্ত হয় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এরই মধ্যে বিশ্বের অন্তত ১৯৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস। এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২২ হাজার ২৬ জন।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop