মহানগর সময় চসিক নির্বাচন ঘিরে বিরোধ চরমে

১৩-০৩-২০২০, ১০:০৮

কমল দে

fb tw
চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারণা যতোই জমে উঠছে কাউন্সিলর প্রার্থীদের বিরোধ ততোই প্রকট হয়ে উঠছে। বিশেষ করে বিএনপির প্রার্থীদের গা ছাড়া আচরণে আওয়ামী লীগ এবং তার বিদ্রোহী প্রার্থীদের দ্বন্দ্ব মারাত্মক আকার ধারণ করছে। প্রতিটি ওয়ার্ডেই এই বিরোধ চরমে। তুচ্ছ বিষয় নিয়ে সংঘাতে জড়াচ্ছেন কর্মী-সমর্থকরা।
নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৩৯টি ওয়ার্ডেই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের বিএনপির প্রার্থীর পাশাপাশি মোকাবেলা করতে হচ্ছে একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থীকে। আধিপত্যের বিস্তারের মাধ্যমে অধিকাংশ ওয়ার্ডেই এসব বিদ্রোহী প্রার্থীর শক্তিশালী অবস্থান রয়েছে। যে কারণে নির্বাচনী মাঠের দখল নিতে মরিয়া হয়ে তারা সংঘাতে জড়িয়ে পড়ছেন।
টিআইবি’র কেন্দ্রীয় পর্ষদের ট্রাস্টি সদস্য প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন মজুমদার বলেন, মনোনীত এবং বিদ্রোহী প্রার্থীরাই সক্রিয়। অন্যদের তেমন একটা মাঠে দেখা যাচ্ছে না। এই সক্রিয়রা নিজেদের মধ্যে সংঘাতে যুক্ত হয়ে নির্বাচনী মাঠের পরিবেশ উত্তপ্ত করছে। 
পোষ্টার লাগানো কিংবা ছেঁড়া নিয়ে যেমন বিরোধ সৃষ্টি হচ্ছে, তেমনি জনসংযোগের বহর যাওয়ার পথেও সংঘাত হচ্ছে। বুধবার রাতে পোষ্টার লাগানোকে কেন্দ্র করে ২৫ নম্বর রামপুর ওয়ার্ডে দু'প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত হয় ৫ জন। এসব সংঘাতের জন্য অতিউৎসাহী কর্মী-সমর্থকদেরকেই দায়ী করছে পুলিশ।
সিএমপি’র উপ-কমিশনার ফারুক উল হক বলেন, মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের জন্যই সমস্যাগুলো হয়েছে।
তবে এখন পর্যন্ত নানা অভিযোগে ৩ কাউন্সিলর প্রার্থীকে শোকজ করার পাশাপাশি আরো বেশক'জনকে মৌখিকভাবে সতর্ক করেছে নির্বাচন কমিশন। সে সাথে সংঘাতে জড়িত কাউন্সিলর প্রার্থীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে পুলিশকে-এমনটাই জানালেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।
চসিকের রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, আমরা একেবারেই শক্ত অবস্থানে রয়েছি। কঠোর অবস্থানে থেকেই এটা আমরা মনিটরিং করছি।
তবে পুলিশের দাবি, আওয়ামী লীগ এবং বিদ্রোহীদের বিরোধ ঠেকাতে আগে থেকেই প্রচারণার রুট জেনে নেয়া হচ্ছে। যাতে তারা মুখোমুখি হয়ে সংঘাতে জড়িয়ে না পড়ে।
সিএমপির উপ-কমিশনার এস এম মেহেদী হাসান বলেন, কোন এলাকায়, কোন প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারণায় যাচ্ছে; ওই এলাকাটা আগে থেকেই আমরা গোয়েন্দা নজরদারিতে রাখছি। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হওয়ার কোনো শঙ্কা তৈরি হয়নি।
অবশ্য প্রার্থীদের আচরণ বিধি দেখতে ইতোমধ্যে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে ১৪টি টিম মাঠে রয়েছে।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop