বাংলার সময় মৃত্যুর পরেও একে অপরকে জড়িয়ে ধরেছিলো বাবা-মেয়ে

০৮-০৩-২০২০, ১১:২৫

সময় সংবাদ

fb tw
মৃত্যুর পরেও একে অপরকে জড়িয়ে ধরেছিলো বাবা-মেয়ে
08
দেহে প্রাণ নেই তবু রয়ে গেল ভালবাসা। মৃত্যুর পরেও ট্রলারডুবিতে পানির অতলে বাবা জড়িয়ে ধরেছিলেন সন্তানকে। প্রাণ নেই তাদের কারো শরীরে। তবু মৃত্যুর পরেও যেন জীবনের তীব্রতর অর্থ দাঁড় করালেন এই বাবা-মেয়ে।
বাবা শামিম হোসেন (৩৫) ও মেয়ে রোশনি খাতুন (৭) শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজশাহীর পদ্মায় ডুবে যাওয়া বর-কনে যাত্রীবাহী নৌকায় ছিলো। নৌকা দুটিতে থাকা আর অনেকের মতোই তলিয়ে যায় তারা। পরে শনিবার (৭ মার্চ) বিকেলে তাদের লাশ দু'টি উদ্ধার করা হয়
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, পদ্মার তলদেশ থেকে ডুবুরিরা তুলে নিয়ে আসেন শামিম হোসেন ও রোশনি খাতুনকে। সে সময় মেয়েকে বাবার লাশ জড়িয়ে ধরে থাকতে দেখা যায়। বাবাও তার বুকের সঙ্গে মেয়েকে জড়িয়ে ধরে ছিলেন। উদ্ধারের পর তাদের আলাদা আলাদা করে দু'টি ব্যাগে রাখা হয়।
স্বজন ও এলাকাবাসী জানায়, ৬ মার্চ বিকেলে পবা উপজেলার হরিয়ান ইউনিয়ের খানপুর গ্রামে বর রুম্মানের বাড়িতে বউভাত অনুষ্ঠান শেষে কনে পুন্নির বাবার বাড়ি ডাইঙ্গারহাট এলাকায় ইঞ্জিনচালিত দু'টি নৌকায় করে ৪০ জন যাচ্ছিল। পথে সন্ধ্যায় পদ্মা নদীর খানপুর এলাকায় পৌঁছালে উত্তাল ঢেউয়ে নৌকা দু'টি উল্টে যায়। এতে নারী ও শিশুসহ অন্তত ৩০ জন নিখোঁজ হন। তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় জেলেরা একটি নৌকা উদ্ধার করেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দলের সদস্যরা উদ্ধারকাজ শুরু করেন। তবে নদী উত্তাল থাকায় উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হচ্ছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop