বাংলার সময় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ভিসির প্রতিকী হাজিরাখাতা’ চুরি

০৪-০৩-২০২০, ২৩:১৬

সময় সংবাদ

fb tw
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ভিসির প্রতিকী হাজিরাখাতা’ চুরি
রংপুরের  বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি) উপাচার্য  প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর উপস্থিতি-অনুপস্থিতি গণনা করে রাখার জন্য ভিসিবিরোধী শিক্ষকদের পক্ষে থেকে টাঙানো প্রতিকী ‘হাজিরা খাতা’ চুরি হয়ে গেছে। এ নিয়ে থানায় সাধারণ ডায়রীও করা হয়েছে আন্দোলনরত শিক্ষকদের সংগঠন অধিকার সুরক্ষা পরিষদের পক্ষ থেকে। ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) দুপুর ১২টায় মানববন্ধনের ডাক দেয়া হয়েছে সংগঠনটির ব্যানারে। 
আন্দোলনরত ভিসিবিরোধী শিক্ষকরা জানান, নিযোগে স্বার্বক্ষণিক উপস্থিতির শর্ত ভেঙে উপাচার্য ক্যাম্পাসে গড়হাজির থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কর্মকান্ড স্থবির হয়ে পড়েছে। এ নিয়ে তারা আন্দোলনে নামলেও এবিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। ফলে আন্দোলনের অংশ হিসাবে ক্যাম্পাসে প্রতিকী হাজিরাখাতা স্থাপনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি তারা পালন করে আসছেন। মঙ্গলবারও উপাচার্যের দরজায় স্মারকলিপি সেঁটে দিয়ে অবস্থান কর্মসূচী পালন করেন। 
কিন্তু আগের রাতে উপাচার্যের দরজা থেকে ব্যানার ও ক্যাম্পাসের রাসেল চত্বরে স্থাপিত প্রতিকী হাজিরা খাতা চুরি হয়ে যায়। বুধবার এ বিষয়টি রেজিস্ট্রারকে লিখিতভাবে অবগত করার পর রংপুর মহানগর পুলিশের তাজহাট থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেছেন অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মতিউর রহমান ও সদস্য সচিব খায়রুল কবীর সুমন।  
এর আগে গত ৫ ফেব্রুয়ারি ভিসির বিরুদ্ধে অর্ধশত অনিয়ম-দুর্নীতি এবং স্বেচ্ছাচারিতার খতিয়ান তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করে আন্দোলনের ঘোষণা দেয়া হয় সংগঠনটির পক্ষ থেকে।২০ ফেব্রয়ারি ক্যাম্পাসের মিডিয়া চত্বরে ভিসির উপস্থিতি-অনুপস্থিতির  ‘হাজিরা খাতা’ শিরোনামে একটি সাদা বোর্ড টাঙিয়ে প্রতিদিন তাঁর উপস্থিতি সংক্রান্ত তথ্য তুলে ধরা হচ্ছিলো। মঙ্গলবার  পর্যন্ত ৯৯১ দিনের মধ্যে উপাচার্য ক্যাম্পাসে উপস্থিত ছিলেন ২২৭ দিন এবং অনুপস্থিত ছিলেন ৭৬৪ দিন।
অধিকার সুরক্ষা পরিষদের আহবায়ক প্রফেসর ড. মতিউর রহমান বোর্ড চুরি ও ব্যানার খুলে ফেলার সাথে জড়িতদের শাস্তি দাবি করে বলেন, এর আগেও প্রশাসন আমাদের টাঙানো স্মারকলিপি খুলেছিলো।সে ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দিয়েও প্রশাসন ব্যবস্থা নেয়নি। এবারের চুরির ঘটনাটি ও প্রশাসনের পক্ষেই করা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। সংগঠনের সদস্যসচিব খায়রুল কবীর সুমন জানিয়েছেন বৃহস্পতিবার দুপুরে এর প্রতিবাদে মানববন্ধন করে আগের বোর্ডের তুলনায় বড় করে নতুন করে হাজিরা খাতা স্থাপন করা হবে। 
এদিকে উপাচার্য্ ক্যাম্পাসে না থাকায় তাঁর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ হলে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ব্যানার-বোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে না জানিয়ে করা হয়েছে। হারিয়ে গেলে এর দায় তাঁর বা তাঁর প্রশাসনের নয় বলে মন্তব্য করেন।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

stay home stay safe
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop