বাণিজ্য সময় ১৭ মার্চ থেকে আগের সুদহার বহাল: অর্থমন্ত্রী

২৭-০২-২০২০, ১০:৪৩

বাণিজ্য সময় ডেস্ক

fb tw
১৭ মার্চ থেকে আগের সুদহার বহাল: অর্থমন্ত্রী
আগামী ১৭ মার্চ থেকে আগের সুদহার বহাল করা হবে, আসবে অটোমেশনে। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে এ তথ্য দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।
বৈঠকে ১ হাজার ৬১০ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ের ৫টি ক্রয় প্রস্তাবে চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।
পোস্ট অফিসে যারা আছে অটোমেশনে আমাদের তাদের আইডি নম্বর, পিন নেয়া হবে। যাদের জন্য ডাকঘর সঞ্চয় স্কীম, জাতীয় সঞ্চয় পদ্ধতি চালু হলো তারাই পাবে। কারা কিনছে তাদের আমরা জানতে চাই, এলোমেলো হচ্ছিলে এজন্য আমরা সেটাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে চাই। অর্ধেক আমরা অটোমেশন করা হয়েছে। আগামী ১৭ মার্চ থেকে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষির্কীতে এ নিয়ে নিষ্পত্তি করতে পারবো জানান মন্ত্রী।
প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ডাকঘর সঞ্চয় ব্যবহারের কথা উল্লেখ করে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ব্যাংকিং অটোমেশন বাস্তবায়ন হলে কেউ লিমিট ক্রস করতে পারবে না। পেনশনভোগীদের জন্য পরিমাণ বেশি করা হয়েছে। পোস্ট অফিসে বিদ্যমান আইনে রয়েছে- ৩০ লাখ, যা অনেক বেশি। সেখানে সুদের হার ১১ দশমিক ২ শতাংশ রাখা হয়েছে।
ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের সুদহার কমনোর কারণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা যখন দেখলাম সবাই চলে যাচ্ছে পোস্ট অফিসে, তখন ভাবলাম-বন্ধ করবো কীভাবে? বন্ধ করতে হলে বলতে হবে ইন্টারেস্ট নাই। যদি একবার কিনে ফেলে তাহলে তো করার কিছু নাই, এখন কিনেন ৬ বা ২ বা এক পারসেন্ট ইন্টারেস্টে। অটোমেশন শেষ হলে এর জন্য যা প্রযোজ্য, তা পাবেন।
উদ্দেশ্য হচ্ছে- ৩০ লাখ, যা ৩০ লাখই থাকবে এবং ওখানে যদি ইন্টারেস্ট ১১ পার্সেন্ট থাকে, ১১ পার্সেন্ট-ই থাকবে না কেন? তারা (গ্রাহক) কম পাবে কেন? আমি তো অটোমেশন করতে পারছি না। সবাই ওখানে দৌড়াচ্ছে। ১৭ মার্চ অটোমেশন শেষ হলে আগের সুদের হারে চলে যাবে। অটোমেশনের কাজ শেষ হলেই এ ঘোষণা দিতে পারবো, আশা করছি এ কাজ করতে পারবো।
ডাকঘর অটোমেশন হওয়ার পর গ্রাহকদের টিআইএন ও আইডি নম্বর নেয়া হবে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রথম ২ লাখ পর্যন্ত আমরা কিছু চাইবো না। তাদের কোনো ধরনের টিআইএন জমা দিতে হবে না। কিন্তু ইন্টারেস্ট ১১ প্লাস পাবে। ২ লাখ পর্যন্ত গ্রাহক আছেন যাদের অনেকেই সই করতে পারেন না, এতটুকু তাদের দিয়ে হবে। আমাদের লক্ষ্য হল যাদের জন্য সঞ্চয়পত্র চালু হল তারাই পাবে, বেশি মিসইউজড হচ্ছিল বলে, এভাবে নিয়ে আসার চেষ্টা করা হয়েছে।
ব্যাংক কমিশন গঠন প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, ব্যাংক কমিশন করবো অবশ্যই করবো, তবে কবে করবো তা এখনই বলা যাচ্ছে না। সময় লাগবে।
গত ১৩ ফেব্রুয়ারি অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের এক পরিপত্রে ডাকঘরে যে সঞ্চয় ব্যাংক রয়েছে সেই ব্যাংকের সুদের হার সরকারি ব্যাংকের সুদের হারের সমপর্যায়ে নিয়ে আসা হয়।
অর্থ মন্ত্রণালয় বলেছে, ডাকঘরে চারভাবে টাকা রাখা যায়। ডাকঘর থেকে জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর সঞ্চয়পত্র কেনা যায়, ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংকে মেয়াদি হিসাব ও সাধারণ হিসাব খোলা যায়। আবার ডাক জীবন বিমাও করা যায়। এবার সুদের হার কমেছে ডাকঘরের সঞ্চয় স্কিমের মেয়াদি হিসাব ও সাধারণ হিসাবে।
সাধারণ হিসাবের ক্ষেত্রে সুদের হার সাড়ে ৭ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে। অবশ্য এরপরে ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের সুদের হারের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করার আশ্বাস দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop