বাণিজ্য সময় পুঁজিবাজার চাঙ্গা করতে বাজারে আসছে রাষ্ট্রায়ত্ত ৫ ব্যাংক

০৯-০২-২০২০, ১৪:১৪

বাণিজ্য সময় ডেস্ক

fb tw
পুঁজিবাজার চাঙ্গা করতে বাজারে আসছে রাষ্ট্রায়ত্ত ৫ ব্যাংক
পুঁজিবাজারে রাষ্ট্রায়ত্ত ৫ ব্যাংককে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। রোববার (০৯ ফেব্রয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে সংশ্লিষ্ঠরা এ নিয়ে বৈঠক করেন।
সচিবালয়ে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের সঙ্গে বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী জানান, সোনালী, রূপালী, বিডিবিএল, জনতা ও অগ্রণী ব্যাংক পর্যায়ক্রমে পুঁজিবাজারে আসবে। প্রথমে রূপালী ব্যাংক এরপর বিডিবিএল আসবে আর সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার টার্গেট নেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।
মন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজার চাঙ্গায় সহায়ক ভূমিকা পালন করবে সরকার, তবে বাজার কী আচরণ করবে তার দায় বাজারের।
ব্যাংকের বিনিয়োগের মাধ্যমে বিদেশি বিনোয়োগকারীরা আকৃষ্ট হবেন এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন অর্থমন্ত্রী। বলেন, রূপালী ব্যাংকের বিনিয়োগ ২৫ শতাংশে উন্নীত করা হবে।
মন্ত্রী বলেন, দেশের পুঁজিবাজার চাঙ্গা করতে রাষ্ট্রীয় এ ব্যাংকগুলোকে বাজারে আনার উদ্যোগ নিতে এ বৈঠক করা হয়।
বৈঠকে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এম খায়রুল হোসেন, অর্থ সচিব আবদুর রউফ তালুকদার, আইসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ব্যাংকগুলোর চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সম্প্রতি ধারাবাহিক পতনের মুখে রয়েছে পুঁজিবাজার। সার্বিক বাজার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এবং দীর্ঘমেয়াদে আস্থা ফেরাতে বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। এর আগে সরকারি সাত কোম্পানির শেয়ার ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এরই অংশ হিসেবে নতুন করে রাষ্ট্রীয় মালিকানার ৫ ব্যাংকের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বসে সরকার।
জানা গেছে, বৈঠকে সোনালী, জনতা ও অগ্রণী, বিডিবিএল, জনতা ব্যাংকের শেয়ার কীভাবে আনা যায় এবং কত অংশ ছাড়া যেতে পারে, তা নিয়ে আলোচনা হয়। একই সঙ্গে অংশীজনসহ বিশেষজ্ঞদের মতামতও নেয়া হয়। তাদের মতামতের ভিত্তিতে পরবর্তী সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে। এছাড়া বর্তমানে ব্যাংকগুলোর আর্থিক অবস্থার বিবরণীসহ সাম্প্রতিক বিষয়গুলো খতিয়ে দেখে শেয়ার ছাড়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। একইসঙ্গে পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত রূপালী ব্যাংকের শেয়ার আরও ছাড়া যায় কি-না, সে বিষয়েও আলোচনা হয়।
গত ২ ফেব্রুয়ারি সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক করে লাভজনক পাঁচটি সরকারি প্রতিষ্ঠানকে পুঁজিবাজারে আনার সিদ্ধান্ত নেয় অর্থ মন্ত্রণালয়। বৈঠকে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত দুইটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার আরও বেশি ছাড়ার সিদ্ধান্ত হয়।
ওইদিন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আমাদের পুঁজিবাজারের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ দরকার। এখানে যারা আছে তারা বিক্ষিপ্তভাবে আছে। লাভজনক সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো পুঁজিবাজারে আনার সিদ্ধান্ত হয়েছে।
এর আগে ২০১৪ সালে সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত সরকারি ব্যাংকগুলোকে পুঁজিবাজারে আনার উদ্যোগ নেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটি আর বাস্তবায়ন হয়নি।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop