বাংলার সময় প্রেমিকার আমরণ অনশন, পালালেন প্রেমিক

০৭-০২-২০২০, ২০:০০

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

fb tw
প্রেমিকার আমরণ অনশন, পালালেন প্রেমিক
সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিক নাসিরের বাড়িতে গত দুইদিন ধরে আমরণ অনশন করছেন স্বামী পরিত্যক্তা প্রেমিকা শাপলা। প্রেমিকা বাড়িতে আসার সংবাদ পেয়ে প্রেমিক নাসির বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছেন। 
প্রেমিক নাসির উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের তরং গ্রামের মৃত মুকিত আখঞ্জির ছেলে। 
বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের তরং গ্রামের মৃত মুকিত আখঞ্জির বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। 
অনশনরত প্রেমিকা শাপলা জানান, প্রায় তিন বছর আগে ভিকটিমের সাবেক স্বামীর সঙ্গে তালাকের পর প্রেমিক নাসির আখঞ্জির সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর মধ্যে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে প্রেমিক নাসির তার সঙ্গে বেশ কয়েকবার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। 
শাপলা জানান, বেশ কিছুদিন ধরে প্রেমিক নাসিরকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে সে এড়িয়ে চলতে থাকে। এক পর্যায়ে তিনি জানতে পারেন তার প্রেমিক নাসির তাকে বিয়ে না করে পার্শ্ববর্তী শিবরামপুর গ্রামের এক তরুনীকে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি বিয়ে করবে। 
বিয়ের সংবাদ পেয়ে শাপলা বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে প্রেমিক নাসিরের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করে। প্রেমিক নাসির তাকে বিয়ে না করলে সে আত্মহত্যা করবে বলেও হুমকি দেয়। 
প্রেমিকা শাপলার মা জানান, তিনি গতকাল বাড়িতে ছিলেন না, জরুরি কাজে ইউনিয়ন পরিষদে ছিলেন। বাড়িতে এসে দেখেন তার মেয়ে বাড়িতে নেই। পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তার মেয়ে প্রেমিক নাসিরের বাড়িতে বিয়ের দাবীতে অনশন করছে। 
তিনি বলেন, এলাকার সবাই জানে তার মেয়ের সঙ্গে নাসিরের প্রেমের সম্পর্ক। বিষয়টি নাসিরের বড় ভাই সামনুর আখঞ্জিকে কয়েকবার জানিয়েছি, কিন্তু তারা এ বিষয়ে কোন উদ্যোগ নেননি। 
তিনি আরো বলেন, গত দুই দিনের মধ্যে তার মেয়েকে স্বীকৃতি না দিয়ে নাসিরের বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিতে ভয় ভীতি আর নির্যাতন করা হচ্ছে। 
প্রেমিক নাসিরের বড় ভাই সামনুর আখঞ্জি জানান, এক স্বামী পরিত্যক্তা নারী গত দুইদিন ধরে তাদের পুরাতন বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছে। তার ভাই নাসির বাড়িতে নেই। নাসিরের পার্শ্ববর্তী গ্রামে বিয়ে ঠিক হয়ে আছে। এরই মধ্যে এই নারী এসে বাড়িতে উঠেছে। এই নারী এর আগে আরো কয়েক জায়গায় বিয়ে হয়েছে। 
একটি প্রতিপক্ষ তাদের মান ক্ষুন্ন করতে এ ধরনের ঘৃণ্য কাজ করিয়েছে বলে তিনি দাবী করেন। 
শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান খসরুল আলম বলেন, এ ঘটনাটি উভয়পক্ষের লোকজন তাকে জানিয়েছেন, বিষয়টি সামাজিক ভাবে শেষ করার জন্য তাদেরকে অনুরোধ করেছেন তিনি। 
তাহিরপুর থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান জানান, এমন একটি ঘটনা শুনেছেন, তবে থানায় এখন পর্যন্ত কেউ বিষয়টি অবগত করেনি।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

stay home stay safe
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop