মহানগর সময় দায় এড়াতে অপকৌশল চালাচ্ছে মিয়ানমার, মত বিশেষজ্ঞদের

২১-০১-২০২০, ১৬:২০

কমল দে

fb tw
দায় এড়াতে অপকৌশল চালাচ্ছে মিয়ানমার, মত বিশেষজ্ঞদের
আন্তর্জাতিক আদালতের রায় প্রভাবিত করতেই রাখাইনে গণহত্যার দায় এড়ানোর অপকৌশল মিয়ানমারের। কেবল যুদ্ধাপরাধের আলামত দেখিয়ে কথিত প্রতিবেদন দিয়েছে দেশটির স্বাধীন কমিশন। মিয়ানমারের এ কথিত প্রতিবেদনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে প্রত্যাখ্যান করেছে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারাও।
বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী রাখাইন রাজ্য থেকে রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করতে গত চার দশকের বেশি সময় ধরে নানা ধরণের নিপীড়ন চালিয়ে আসছে মিয়ানমার সরকার। দফায় দফায় হত্যা-ধর্ষণ এবং নির্যাতনের মুখে তারা পালিয়ে আসে বাংলাদেশে।
এর মধ্যে সবচেয়ে বড় নির্যাতনের ঘটনা ঘটে ২০১৭ সালের আগষ্ট মাসে। সেনা ছাউনিতে হামলার অভিযোগে রোহিঙ্গাদের নির্বিচারে হত্যা শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। মাত্র কয়েকদিনের ভয়াবহ নির্যাতনে শত শত রোহিঙ্গার মৃত্যু হয় রাখাইন রাজ্যে।
এ নিয়ে মিয়ানমারকে আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারের মুখোমুখিও হতে হয়েছে। কিন্তু আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের রায় ঘোষণার মাত্র দুই দিন আগে মিয়ানমারের নিজস্ব প্রতিবেদনে কোনো রকম গণহত্যা হয়নি বলে দাবি করা হয়েছে।
সাবেক কূটনীতিক মেজর অব. এমদাদুল ইসলাম বলেন, বিশ্বব্যাপী গণহত্যা যাকে বলা হয় তাদের ওখানে সব অনুষঙ্গ হয়েছে। কিন্তু তারা গণহত্যাকে স্বীকার করছ না।
২০১৭ সালের আগষ্টের শেষ সপ্তাহে মিয়ানমার সেনা বাহিনীর নির্যাতন থেকে বাঁচতে ৮ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। স্বজন হারানো সহায়-সম্বলহীন পরবাসী এসব রোহিঙ্গারাও মিয়ানমারের এ প্রতিবেদন মানতে নারাজ। বরং আন্তর্জাতিক আদালতের কাছে তারা মিয়ানমারের কঠিন শাস্তি দাবী করছে।
গবেষকদের দাবী, প্রথম থেকেই মিয়ানমার সরকার নানাভাবে আন্তর্জাতিক আদালতকে প্রভাবিত করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে। এমনকিং অং সান সূ চি পর্যন্ত আদালতে গিয়ে বক্তব্য দিয়ে বিশ্ব জনমতকে তাদের পক্ষে নেয়ার চেষ্টা চালায়। তারপরে'ও যখন সফল হতে পারছে না তখনই এ মনগড়া রিপোর্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতকে প্রভাবিত করার শেষবারের মতো চেষ্টা চালাচ্ছে।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুষদের সাবেক ডিন প্রফেসর ড. জাকির হোসেন চৌধুরী বলেন, মিয়ানমারের একটা কৌশল হচ্ছে কোনো একটা স্বাধীন কমিটি গঠন করে দেশি বিদেশী সংগঠনকে দেখানো যে আমাদের সঙ্গে অন্য দেশ যুক্ত আছে। এটা তাদের দায় এড়ানোর একটা কৌশল।
অবশ্য এর আগেই যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশককয়েটি দেশ মিয়ানমারের শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop