বাংলার সময় শতবর্ষী মাকে তীব্র শীতে স্টেশনে ফেলে গেলেন ‘সন্তানেরা’

১৪-০১-২০২০, ১৭:৩০

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

fb tw
শতবর্ষী মাকে তীব্র শীতে স্টেশনে ফেলে গেলেন ‘সন্তানেরা’
চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তা উপজেলার রহনপুর রেলওয়ে স্টেশনে তীব্র শীতের মধ্যে শতবর্ষী এক মাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যান তার সন্তান ও স্বজনরা। প্লাটফর্মে হাড় কাঁপানো শীতে ১৫ দিন থাকার পর রোববার (১২ জানুয়ারি) রাতে ওই বৃদ্ধ মাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তার নাম-ঠিকানা কিছুই জানা যায়নি। হাসপাতালে চিকিৎসার পর বৃদ্ধার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে।
১৫ দিন আগে শতবর্ষী এ বৃদ্ধাকে রেলওয়ে স্টেশনে ফেলে যাওয়ার পর পুলিশ ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি এখন গোমস্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন। 
রহনপুর রেলওয়ে স্টেশন এলাকার সিরাজুল ইসলাম জানান, ১৫ দিন আগে দুইজন ভ্যানে করে বৃদ্ধাকে স্টেশনে ফেলে রেখে চলে যায়। পরে আমি তাকে স্টেশনের পরিত্যক্ত ছাউনির নিচে খড় দিয়ে বিছানা করে থাকার ব্যবস্থা করে দেই। রোববার সন্ধ্যায় বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশ প্রশাসনসহ স্থানীয় ওই রাতেই বৃদ্ধাকে গোমস্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে। 
গোমস্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সালাউদ্দীন আহমদ জানান, রোববার রাত ১০টার দিকে কয়েকজন ওই বৃদ্ধাকে নিয়ে এসে হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই সময় তার শরীরিক অবস্থা খুব খারাপ ছিল। এরপর থেকে তিনি চিকিৎসাধীন। ভর্তির পর থেকেই অমরা তাকে চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছি। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরের পর থেকেই তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে থাকে। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল থেকে তিনি কথা বলতে পারছেন। এখন তিনি অনেকটাই সুস্থ এবং বর্তমানে তিনি শংকামুক্ত।
এ ঘটনার খবর পেয়ে বৃদ্ধার পাশে অনেকেই এগিয়ে এসেছেন। রহনপুর পৌরসভার পক্ষ থেকে মালতি বেগম নামের এক মহিলাকে বৃদ্ধার দেখাশুনার জন্য হাসপাতালে রাখা হয়েছে। এ অমানবিক ঘটনার জন্য তার সন্তানদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন স্থানীয়রা।
গোমস্তাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জসিম উদ্দীন জানান, বৃদ্ধার চিকিৎসার ব্যাপারে আমরা সার্বক্ষণিক খবর রাখছি। বাড়ির ঠিকানা বলতে না পারায় আমরা তার পরিবারকে খুঁজে বের করতে পারছি না। তবে ওই বৃদ্ধার ছবিসহ আমরা সব জায়গায় ম্যাসেজ পাঠিয়েছি। পরিবারের খোঁজ পেলে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।
রহনপুর পৌরসভার মেয়র তারেক আহম্মেদ বলেন, বিষয়টি খুবই খারাপ। আমি খবর পেয়েই হাসপাতালে গেছি। মেয়র হিসেবে নয়, যতদিন ওই মায়ের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যাবে সন্তান হিসেবে ততদিন দায়িত্ব পালন করবো।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

করোনা ভাইরাস লাইভ ›

লাইভ অনুষ্ঠান বুলেটিন ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
সর্বশেষ সংবাদ
অনুসদ্ধান
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop