খেলার সময় ২০১৯ এ কেমন ছিল খেলার দুনিয়া

২৬-১২-২০১৯, ২১:২৭

মামুন শেখ

fb tw
২০১৯ এ কেমন ছিল খেলার দুনিয়া
দরজায় দাঁড়িয়ে নতুন বছর। ক্রীড়াঙ্গনে ব্যস্ততায় পার হওয়া ২০১৯-এর আড়মোড়া ভেঙে নতুনকে আলিঙ্গনের অপেক্ষায় ক্রীড়াপ্রেমীরা। বছরজুড়ে একেকটি নতুন ক্রীড়াযজ্ঞ সামনে এসে আগেরটিকে ভুলিয়ে দিয়েছে। তাই একটু ফিরে দেখা যাক- কেমন ছিল ২০১৯-এর ক্রীড়াঙ্গন।
বিপিএল:
বছর শুরু হয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ-বিপিএলের ষষ্ঠ আসর দিয়ে। ৫ জানুয়ারিতে পর্দা উঠা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের আয়োজনে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ ফ্রাঞ্চাইজি লিগটিতে অংশ নেয় সাতটি দল। লিগপর্বের লড়াই শেষে সেরা চারে জায়গা করে নেয় রংপুর রাইডার্স, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, চিটাগং ভাইকিংস এবং ঢাকা ডায়নামাইটস। প্রথম প্লে অফে রংপুর রাইডার্সকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সরাসরি ফাইনালে উঠে যায় কুমিল্লা। অপরদিকে প্রথম এলিমিনেটর ম্যাচে চিটাগংকে বিদায় করার পর দ্বিতীয় ম্যাচেও রংপুর রাইডার্সকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে ঢাকা ডায়নামাইটস। ফাইনালে ঢাকাকে ১৭ রানে হারিয়ে প্রথমবারের মতো শিরোপা ঘরে তোলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।
এশিয়া কাপ:
একইদিন শুরু হয় এএফসি এশিয়ান কাপ ফুটবল। টুর্নামেন্টের ১৭তম আসটি বসে সংযুক্ত আরব আমিরাতে, ৫ জানুয়ারি থেকে ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ২৪ দলের প্রতিযোগিতার ম্যাচগুলো মোট ছয়টি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। ফাইনালে শক্তিশালী জাপানকে ৩-১ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট মাথায় তোলে ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতার।
দক্ষিণ আমেরিকান অনূর্ধ্ব-২০ চ্যাম্পিয়নশিপ:
১৭ জানুয়ারি-১০ ফেব্রুয়ারি বসে দক্ষিণ আমেরিকান অনূর্ধ্ব-২০ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ। চিলিতে অনুষ্ঠিত হওয়া আসরে স্বাগতিক দেশ ছাড়াও অংশ নেয় আর্জেন্টিনা, বলিভিয়া, ব্রাজিল, ইকুয়েডর, কলম্বিয়া, প্যারাগুয়ে, পেরু এবং উরুগুয়ে। ফুটবলসর্গ কনমেবল অঞ্চলের যুবাদের এ লড়াইয়ের সেরা চার দলই ২০১৯ সালে ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপের জন্য পোল্যান্ডের টিকেট পায়। প্রথমবারের মতো শিরোপা জেতে ইকুয়েডর। দ্বিতীয় অবস্থানে থেকে টুর্নামেন্ট শেষ করে আর্জেন্টিনা। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে তৃতীয় এবং কলম্বিয়া চতুর্থ স্থান অর্জন করে।
রেস অব চ্যাম্পিয়ন্স:
জানুয়ারিতেই কালো পিচে ঝড় তোলেন রেসাররা। ১৯-২০ জানুয়ারিতে ‘রেস অব চ্যাম্পিয়ন্স’র অংশ নিতে বিশ্বের মোটররেসিংয়ের চ্যাম্পিয়নরা জড়ো হন মেক্সিকোর ফোরো সোল’য়ে। ব্যক্তিগত ক্যাটাগরিতে ফ্রান্সের ল্যঁইস দ্যুঁলাভকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হন ঘরের ছেলে বেনিতো গুয়েরা জুনিয়র। আর নেশন্স কাপে চ্যাম্পিয়ন হয় নর্ডিক অঞ্চলের প্রতিযোগীদের দল।
বিএনপি পারিবাস ওপেন:
টেনিসের পুরনো এবং ঐতিহ্যবাহী এ প্রতিযোগিতা শুরু হয় ৪ মার্চ, শেষ হয় ১৭ মার্চ। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ইন্ডিয়ান ওয়েলসে অনুষ্ঠিত হওয়া পুরুষদের ইভেন্টটি ছিলো টুর্নামেন্টের ৪৬তম আর নারীদের ইভেন্টটি ছিলো ৩১তম। ডব্লিউটিএ এবং এটিপি ট্যুর সিঙ্গেলস প্লেয়ার র‍্যাংকিংয়ের সেরা ৭৫ জন প্রাথমিক তালিকায় থাকলেও দুইবারের চ্যাম্পিয়ন রাশিয়ার টেনিস সুন্দরী মারিয়া শারাপোভা কাঁধের ইনজুরির কারণে টুর্নামেন্ট শুরুর তিন সপ্তাহ আগে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন। জন মার্টিন ডেল পোর্তো এবং নোয়ামি ওসাকা যথাক্রমে নারী এবং পুরুষ এককে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ছিলেন। হাঁটুর ইনজুরির কারণে টুর্নামেন্ট শুরুর আগে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন ডেল পোর্তো। আর ব্লিন্ডার বেনসিসের কাছে হেরে চতুর্থ রাউন্ড থেকে বিদায় নেন ওসাকা।
পুরুষ এককে সেরার মুকুট পরেন অস্ট্রিয়ার ডোমিনিক থেইম। আর নারী এককে জয়ী হন কানাডার বিয়ন্সে আন্দ্রেসকু। পুরুষ দ্বৈতে শিরোপা জেতেন ক্রোয়েশিয়ার নিকোলা মেকটিক এবং আর্জেন্টিনার হোরাসিও জেবালুস। নারী দ্বৈতের শিরোপা উঠে জার্মানির এলিসে মার্টিনস এবং বেলারুশের আরেনা সাবালেঙ্কার হাতে।
আইপিএল:
মার্চে মাঠে গড়ায় ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় ফ্রাঞ্চাইজি লিগ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আই্পিএল) ১২তম আসর। ভারতে সাধারণ নির্বাচনের কারণে শুরুতে আসরটি দেশের বাইরে আয়োজনের চিন্তা করা হলেও শেষ পর্যন্ত পুরো টুর্নামেন্টই ভারতেই আয়োজন করা হয়। লোধা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী, আইপিএলের পর ১৫ দিনের বিরতি নিশ্চিত করতে বিশ্বকাপে ভারতের প্রথম ম্যাচটি ২ জুন থেকে ৫ জুনে নিয়ে যাওয়া হয়। আসরে আটটি দল অংশ নেয়। দিল্লি ডেয়ারডেভিলস এর নাম বদলে রাখা হয় দিল্লি ক্যাপিটালস। রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংসকে ১ রানে হারিয়ে শিরোপা পুনরুদ্ধার করে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ৬৯২ রান করে সর্বোচ্চ রানের অরেঞ্জ কাপ জেতেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। চেন্নাই সুপার কিংসের ইমরান তাহির ২৬ উইকেট নিয়ে জেতেন পার্পল কাপ।
ফ্রেন্স ওপেন:
২৬ মে থেকে ৯ জুন প্যারিসে জড়ো হন বিশ্বসেরা টেনিস তারকারা। ফ্রেন্স ওপেনের ১২৩তম আসরের প্রাইজমানি ছিলো ৪ কোটি ২৬ লাখ ৬১ হাজার ব্রিটিশ পাউন্ড। ক্লে কোর্টে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রাফায়েল নাদাল শিরোপা ধরে রাখে। স্প্যানিশ তারকার এটি রেডর্ক ১২তম ফ্রেন্স ওপেন টাইটেল। নারী এককের শিরোপা জেতেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশলেহ বার্টি। পুরুষ দ্বৈতে জার্মানির কেভিন ক্রায়েজ এবং আন্দ্রেস মাইস, নারী দ্বৈতে হাঙ্গেরির টিমে বাবোস এবং ফ্রান্সের ক্রিস্টিনা ম্লাদেনোভিস শিরোপা জেতেন। আর মিক্স ডাবালের শিরোপা জেতেন তাইওয়ানের লাতিশা চেন এবং ক্রোয়েশিয়ার ইভান ডডিং।
উয়েফা ইউরোপা লিগ:
মে মাসের ১৫ তারিখে উয়েফা ইউরোপা লিগের ধ্রুপদী ফাইনালে লন্ডন ডার্বি উপভোগ করেন দর্শকরা। আজারবাইজানের বাকুতে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় আর্সেনাল এবং চেলসি। দ্বিতীয়বারের মতো অল ইংলিশ ফাইনালে প্রথমবারের মতো একই শহরের দুই দল মুখোমুখি হয় ইউরোপার ফাইনালে। ম্যাচে আর্সেনালকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপার শিরোপা ঘরে তোলে চেলসি।
ক্রিকেট বিশ্বকাপ:
৩০ মে ইংল্যান্ডে বসে ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় আসর আইসিসি ওয়ার্ল্ডকাপ। ১৪ জুলাই পর্যন্ত ক্রিকেট তার জন্মভূমিতে আলো ছড়ায়। যে আলোর ছটায় পুরো বুদ হয়ে ছিলো বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গন। ইংল্যান্ডের মাটিতে রেকর্ড পঞ্চমবারের মতো বসেছিলো বিশ্বকাপের আসর। ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলসের ১১টি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয় ম্যাচগুলো। ১৪ থেকে অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা নামিয়ে আনা হয় ১০ এ। ছয় সপ্তাহ ধরে চলা রাউন্ড রবিনের চারটি ম্যাচ খারাপ আবহাওয়ার কারণে পরিত্যক্ত হয়, যা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনায়ও পড়তে হয় আইসিসি এবং আয়োজক ইংল্যান্ডকে। সেরা চারে জায়গা করে নেয় ভারত, অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ড। নেট রান রেটে পিছিয়ে থাকায় কপাল পড়ে পাকিস্তানের। সেমিতে জিতে ফাইনালের টিকিট অর্জন করে স্বাগতিক ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ড। ঐতিহাসিক লর্ডসে নাটকীয়তায় ঠাসা ছিলো ফাইনাল ম্যাচটি। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফাইনাল প্রথমবারের মতো ম্যাচ টাই হওয়ায় খেলা গড়ায় সুপার ওভারে। ব্যাটিংয়ে নেমে দুই দলই ২৪১ রান তোলে। সুপার ওভারও যখন টাই হয়ে যায় তখন বাউন্ডারির সংখ্যার হিসেবে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জেতে খেলাটির জনক ইংল্যান্ড।
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ:
জুনের প্রথম দিন ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতার ফাইনাল ম্যাচ মাঠে গড়ায়। মাদ্রিদের ওয়ানডা মেট্রোপলিটানোতে ইউরোপিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে মুখোমুখি হয় ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পুর এবং লিভারপুল এফসি। উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে টটেনহ্যাম ছিলো একেবারেই নতুন। অপরদিকে লিভারপুলের এটি ছিলো সপ্তম ফাইনাল, এবং টানা দ্বিতীয়বারের মতো। তার আগের আসরে অর্থাৎ ২০১৮ সালে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে হেরে শিরোপা স্বপ্ন ভেস্তে যায় লিভারপুলের। তবে এবার আর কোনো ভুল করেনি রেড ডেভিলরা। অল ইংলিশ ফাইনালে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের ম্যাচ ২-০ গোলে জয় পায় মোহাম্মদ সালাহদের লিভারপুল।
নারী ফুটবল বিশ্বকাপ:
৭ জুন থেকে বিশ্বসেরার লড়াইয়ে নামেন নারী ফুটবলাররা। ফিফা নারী বিশ্বকাপের অষ্টম আসরে অংশ নেয় ২৪টি দল। ফ্রান্সের ৯টি শহরে ৫২টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন যুক্তরাষ্ট্র ফাইনালে নেদারল্যান্ডসকে ২-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা ধরে রাখে। এটি তাদের রেকর্ড চতুর্থ শিরোপা। জার্মানির পর একমাত্র তারাই টানা দুইবার বিশ্বকাপ জেতার রেকর্ডে নাম লেখাল।
ওয়ার্ল্ড আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ:
১০ থেকে ১৬ জুন নেদারল্যান্ডসে বসে আর্চারির সবচেয়ে বড় বৈশ্বিক ইভেন্ট- ওয়ার্ল্ড আর্চারি চ্যাম্পিয়নশিপ। ২০২০ টোকিওতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সামার অলিম্পিকের কোয়ালিফায়ার হিসেবে বিবেচিত হওয়া এ আসরের পুরুষ এককে ব্রোঞ্জ পদক জেতে বাংলাদেশের রোমান সানা। স্বর্ণ এবং রৌপ্য জেতেন যথাক্রমে যুক্তরাষ্ট্রের ব্রাডি এলিসন এবং মালয়েশিয়ার খায়রুল আনোয়ার মোহাম্মদ। নারী এককের স্বর্ণ জেতেন চাইনিস তাইপের লেই চেইন ইয়াং এবং রৌপ্য জেতেন দক্ষিণ কোরিয়ার কাং চে-ইয়ং। পুরুষদের দলীয় ইভেন্টে স্বর্ণপদক জেতে চীন, রানার্সআপ হয় ভারত। নারীদের দলীয় ইভেন্টের স্বর্ণ যায় চাইনিস তাইপের ঘরে আর রৌপ্য পদক যায় দক্ষিণ করিয়ার ঘরে।
কোপা আমেরিকা:
ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো প্রতিযোগিতা কোপা আমেরিকা আসর বসে এবছরও। ১৪ জুন ব্রাজিলের ৬টি ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয় প্রতিযোগিতার ৪৬তম আসরটি। টানা দুইবারের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন চিলি সেমি ফাইনালে পেরুর কাছে হেরে বিদায় নেয়। প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠে স্বাগতিক ব্রাজিলের বিপক্ষে ৩-১ গোলে হের যায় পেরু। চিলিকে হারিয়ে তৃতীয় স্থান অধিকার করে আর্জেন্টিনা। টুর্নামেন্ট শেষে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবলের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। তিনি অভিযোগ করেন, ব্রাজিলকে শিরোপা জেতানোর জন্যই আসরটি আয়োজন করা হয়েছিলো। এর জেরে মেসিকে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে সাময়িক নিষেধাজ্ঞাও দেয় কনবেমল।
কনকাকাফ গোল্ডকাপ:
ফুটবলের ব্যস্ত বছরে উত্তর ও মধ্য আমেরিকা এবং ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের প্রতিযোগিতা কনকাকাফ গোল্ডকাপের আসটিও বসে ২০১৯ সালে। যুক্তরাষ্ট্র, জ্যামাইকা এবং কোস্টারিকায় অনুষ্ঠিত আসরে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে অংশ নেয় যুক্তরাষ্ট্র। ২০১৮ সালে কনকাকাফের ঘোষণা অনুযায়ী, ১২ দল থেকে বাড়িয়ে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা করা হয় ১৪। ফাইনালে যুক্তরাষ্ট্রকে ১-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা জেতে মেক্সিকো। এটি তাদের অষ্টম গোল্ড কাপ টাইটেল। তবে কনকাকাফ চ্যাম্পিয়নশিপ হিসেব করলে এগারোতম শিরোপা।
আফ্রিকা কাপ অব নেশন্স:
২১ জুন মিশরে শুরু আফ্রিকার ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই। ১৬ দলের জায়গায় এবারের আফ্রিকা কাপ অব নেশন্সে অংশ নেয় ২৪ দল। টুর্নামেন্টটি আয়োজনের কথা ছিলো ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ক্যামেরুনের। কিন্তু বোকো হারামসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী সংগঠনের হুমকি এবং অবকাঠামোগত দুর্বলতার কারণে শেষ পর্যন্ত মিশরকে আয়োজক হিসেবে বেছে নেয় কনফেডারেশন অব আফ্রিকান ফুটবল (সিএএফ)। নাইজেরিয়ার কাছে হেরে রাউন্ড অব সিক্সটিন থেকে বিদায় নেয় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ক্যামেরুন। স্বাগতিক মিশরও একই পর্যায় থেকে বিদায় নেন, দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হেরে। ১৯ জুলাইয়ের ফাইনালে সেনেগালকে ১-০ গোলে হারিয়ে দুই দশক পর শিরোপা স্বাদ পায় আলজেরিয়া। এর আগে ১৯৯০ সালে একবার শিরোপা জিতেছিলো তারা।
উইম্বলডন:
টেনিসের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ গ্রান্ডস্লাম উইম্বলডন শুরু হয় ১ জুলাই, শেষ হয় ১৪ জুলাই। ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত আসরটি প্রতিযোগিতার ১৩৩তম আসর। ৩ কোটি ৮০ লাখ ডলার প্রাইজমানির এ গ্রান্ডস্লামে পুরুষ এককের শিরো জেতেন সার্বিয়ার নোভাক জকোভিস। নারী এককের শিরোপা জেতেন রোমানিয়ার শিমোনা হালেপ। পুরুষ দ্বৈতে কলম্বিয়ার জুয়ান সেবাস্টিয়ান ক্যাবেল এবং রবার্ট ফারাহ শিরোপা জেতেন। নারী দ্বৈতে তাইওয়ানের শিয়ে সু-উই এবং চেক প্রজাতন্ত্রের বারবারা স্ত্রেকোভা এবং মিক্সড ডাবালের শিরোপা জেতেন ক্রোয়েশিয়ার ইভান ডডিং এবং তাইওয়অনের লাতিশা চেন।
অ্যাশেজ:
বছরের শেষভাগে এসে অ্যাশেজে মাতে ক্রিকেটের সবচেয়ে পুরনো দুই প্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড। ১ আগস্ট থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয় পাঁচ ম্যাচের সিরিজটি। এটিই ছিলো আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ২০১৯-২১ সূচির প্রথম সিরিজও ছিলো এটি। ২৫১ রানে অস্ট্রেলিয়ার জয় দিয়ে শুরু হয় সিরিজ। দ্বিতীয় ম্যাচটি হয় ড্র। তৃতীয় ম্যাচে ১ উইকেটের নাটকীয় জয়ে সিরিজে ফেরে ইংল্যান্ড। চতুর্থ ম্যাচে ১৮৫ রানের আবারো এগিয়ে যায় অজিরা। তবে শেষ ম্যাচে ১৩৫ রানের জয়ে সমতায় ফেরে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। তবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে শিরোপা নেয়েই ঘরে ফেলে অস্ট্রেলিয়া। সিরিজে সর্বাধিক ৭৭৪ রান করেন অস্ট্রেলিয়ার স্টিভ স্মিথ। ২৯ উইকেট নিয়ে সর্বাধিক উইকেট শিকারি হন অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স।
বিপিএল:
বছর শেষ হচ্ছে একটি ব্যতিক্রমী ঘটনা দিয়ে। প্রথমবারের মতো একই বছরে দুইবার বসছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ-বিপিএল। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতেই বসেছিলো ষষ্ঠ আসরটি। সপ্তম আসর বসে ১১ ডিসেম্বর ডিসেম্বর। এবারের বিপিএল অনেক দিক থেকে আগের আসরগুলো থেকে আলাদা। বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে আসরের নাম রাখা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’। ফ্রাঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় এবার আর নতুন করে চুক্তি না করে বিসিবি নিজেই তত্ববধানেই আয়োজন করছে আসরটি। নিয়মেও এসেছে অনেক পরিবর্তন। অংশ নেয়া সাতটি দল হল-ঢাকা প্লাটুন, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স, রাজশাহী রয়্যালস, খুলনা টাইগার্স, কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স, সিলেট থান্ডার, রংপুর রেঞ্জার্স। আগামী ১৭ জানুয়ারি মিরপুর শের-ই বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল ম্যাচ।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop