বাণিজ্য সময় সুদের হার-খেলাপি ঋণ কমাতে ব্যর্থ অর্থমন্ত্রী

০৯-১২-২০১৯, ০৫:৪২

হরিপদ সাহা

fb tw
ঋণের সুদের হার এক অঙ্কে নামিয়ে আনা কিংবা খেলাপি ঋণ কমানো, সব ক্ষেত্রেই অর্থমন্ত্রী ব্যর্থ হয়েছেন। প্রায় এক বছরে তার নেয়া কোনো পদক্ষেপেই সন্তুষ্ট নয় দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। বিশ্লেষকরাও বলছেন, খেলাপি ঋণ কমাতে তিনি ভুল পথে হেঁটেছেন। ব্যাংকখাতের বিশৃঙ্খলা দূর করতে ইচ্ছাকৃত খেলাপিদের বিরুদ্ধে কঠোর হওয়ার পরামর্শ দেন তারা।
বছরের শুরুতে নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামাল খেলাপি ঋণ আর বাড়তে না দেয়ার যে চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন। বছরের প্রায় শেষদিকে এসে সে হিসাব মিলছে না। প্রায় প্রতি প্রান্তিকেই কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা গেছে খেলাপি ঋণের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী।
২০১৮ সালের ডিসেম্বর শেষে ব্যাংকখাতে খেলাপি ঋণ ছিল ৯৩ হাজার ৯১১ কোটি, যা তিন মাসের ব্যবধানে ২০১৯ এর মার্চ শেষে ১৬ হাজার ৯৬২ কোটি বেড়ে দাঁড়ায় ১ লাখ ১০ হাজার ৮৭৩ কোটিতে, সেপ্টেম্বর শেষে খেলাপির খাতায় ১ লাখ ১৬ হাজার ২৮৮ কোটি টাকা সুদের হার ও খেলাপি ঋণের পরিমাণ না কমার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণে অর্থমন্ত্রীর সমন্বয়হীনতা ও অদূরদর্শীতাকে দায়ী করেন এফবিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম।
তিনি বলেন, ব্যাংকিং সেক্টরে অর্থ মন্ত্রণালয়ে একেক সময় একেক সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়েছে, কিছু লোককে সাপোর্ট দেয়ার জন্য। সার্বিক অর্থনীতি ও ব্যাংকিং সেক্টরকে সাপোর্ট করার জন্য নয়।
তিন মাসের পরিবর্তে ছয় মাস পর্যন্ত ঋণের কিস্তি পরিশোধ না করলে খেলাপি হবে-এমন শিথিল নীতি কার্যকর হয় জুনে। এছাড়া মাত্র ২ শতাংশ এককালীন পরিশোধে ৯ শতাংশ সুদে ১০ বছরের জন্য খেলাপি ঋণ নিয়মিত করার সুযোগ দেয়াও সঠিক সিদ্ধান্ত ছিল না বলে মনে করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খন্দকার ইব্রাহীম খালেদ।
প্রবীণ এ বিশ্লেষক বলেন, উনি এসে খেলাপি ঋণের সংজ্ঞা নমনীয় করলেন, যা পৃথিবীর কোথাও করা হয় না। অন্যদিকে ২ পার্সেন্ট টাকা জমা নিয়ে অনেক খেলাপিকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এগুলো চিন্তায় ভুল কাজ হয়েছে।
এডিবিসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের মতে, বাংলাদেশে ব্যাংকখাতে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ২ লাখ কোটি টাকার বেশি। তাই খেলাপির লাগাম শক্তহাতেই টানার পরামর্শ দেন তিনি।
ইব্রাহীম খালেদ বলেন, ঋণ নিয়েছেন, কিন্তু তার বদলে যে কাজটা করার কথা সেটা করা হয়নি। আবার এলসিও করা হয়েছে। কিন্তু মাল আনা হয়নি। এগুলো হলে ক্রিমিনাল ওপেন্স। এ সব ঋণখেলাপিদের ধরে শক্ত হাতে শাস্তি দিতে হবে।  
ব্যাংকখাতের দুর্বলতা দূর করতে বাংলাদেশ ব্যাংককে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত করে স্বাধীনভাবে নীতি গ্রহণের সুযোগ দেয়ার পরামর্শও দেন বিশ্লেষকরা।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

stay home stay safe
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop