মহানগর সময় সেরনিয়াবাত পরিবারকে হত্যার নিষ্ঠুর বর্ণণা দিলেন প্রত্যক্ষদর্শীরা

০১-০৯-২০১৯, ১০:২৩

ফিরদাউস সোহাগ

fb tw
সেরনিয়াবাত পরিবারকে হত্যার নিষ্ঠুর বর্ণণা দিলেন প্রত্যক্ষদর্শীরা
বরিশালে শোকাবহ আগস্ট স্মরণে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও ক্ষতিগ্রস্তদের অংশগ্রহণে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো বড় পরিসরে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান। শুধু নগরী নয়, জেলার বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ প্রত্যক্ষদর্শীদের মুখের কথা শোনার জন্য বরিশালের বঙ্গবন্ধু উদ্যানে জমায়েত হন। অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক বঙ্গবন্ধুর ভগ্নিপতি ও রাজনৈতিক সহচর শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের পুত্রবধূ সাহান আরা বেগম। তিনি তুলে ধরেন ভয়াবহ সেই হত্যাকাণ্ডের নির্মম চিত্র। 
দীর্ঘ ৪৪ বছর পর প্রথমবারের মতো ৭৫-এর ১৫ আগস্টে ঘটে যাওয়া বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের পুত্র আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর স্ত্রী সাহান আরা বেগম। 
নির্মম সেই হত্যাকাণ্ডে তিনি হারান তার পুত্র ও স্বজন। মনের কোণে জামানো কষ্টগুলো পাথরের মতো জমাট বেঁধে আছে। জানালেন, হত্যাকাণ্ডের দিন ছিলেন তৎকালীন কৃষিমন্ত্রী ও শ্বশুর শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের মিন্টু রোডের সরকারি বাস ভবনে। ভোররাতে ঘাতকের বুলের শব্দে ঘুম ভাঙে তার। সেই বুলেটে প্রাণ হারান ছেলে সুকান্ত বাবুসহ বেশ ক'জন স্বজন। ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান সাহান আরা বেগম।
তিনি বলেন, আমার চোখের সামনে আমি দেখছি আমার পরিবারের সমস্ত স্বজন পরে আছে। কেউ পরে আছে, কেউ কাতরাচ্ছে। আমার ননদ বেবী সেরনিয়াবাত, যে মারা গেছে, বার বার বলছিল ‘একটু পানি দাও, আমাকে একটু পানি দাও’।
ইতিহাসের নির্মম এই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করেন বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ। বাবা ও ভাইবোন হত্যার বিচার চান তিনি।
আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ বলেন, এর জন্য কমিশন গঠন করা হোক, যারা যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হোক।
হত্যাকাণ্ডের সময় মিন্টু রোডের বাড়িতে ছিলেন বরিশাল ক্রিডেন্স ব্যান্ড গ্রুপের সদস্যরা।
ব্যান্ড গ্রুপের সদস্য সাইফুল ইসলাম তপন বলেন, প্রথমে তারা এলোপাথারি গুলি করা শুরু করে। স্টেনগানের বাট দিয়ে পিটানো শুরু করে। তার আঘাতে আমার কাঁধ ভেঙে গিয়েছিল।
ব্যান্ড গ্রুপের সদস্য ডা. খন্দকার জিল্লুর রহমান বলেন, আমাদেরকে আর সেরনিয়াবাত মাহেবের পরিবারকে একসাথে দাঁড় করিয়ে ব্রাশফায়ার করা শুরু করে। 
ব্যান্ড গ্রুপের আরেক সদস্য রফিকুল ইসলাম পিন্টু, এ ঘটনায় আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আব্দুর নঈম কান রিন্টুকে হারাই, এছাড়া মন্ত্রী সেরনিয়াবাত সাহেব, তাঁর ভাইয়ের ছেলে, তাঁর নাতনি এবং তাঁর মেয়ে ওইদিন নিহত হয়। আমরা সবাই আহত হই।
সাহান আরা বেগম বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ'র মা এবং বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ'র স্ত্রী। সেদিন সেরনিয়াবাত পরিবারের ৬ সদস্যকে হত্যা করে একদল বিপথগামী সেনা সদস্য।

করোনা ভাইরাস লাইভ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop