খেলার সময় টাকা দিয়ে ট্রফি কেনা যায়?

০৭-০৩-২০১৮, ১৯:৫৪

মামুন শেখ

fb tw
টাকা দিয়ে ট্রফি কেনা যায়?
আরেকটি মৌসুম, আরও বড় বিনিয়োগ, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে প্যারিস সেন্ট জার্মেই'র আরেকটি মলিন বিদায়।
 
মৌসুমের শুরু থেকে দলের দাপট আশা জাগাচ্ছিলো স্বপ্ন পূরণের। সবশেষ গ্রীষ্মে মোনাকো থেকে কিলিয়ান এমবাপ্পে এবং বার্সেলোনা থেকে দানি আলভেসকে দলে ভেড়ানোর পর দুর্দান্ত হয়ে ওঠে পিএসজি। তবে ট্রান্সফার ফি'র বিশ্বরেকর্ড গড়ে ২২২ মিলিয়ন ইউরোতে নেইমারকে নিয়ে আসার পর লিগে অনেকটাই অপ্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠে পার্সিয়ানরা। অনেকেই ভাবছিলেন, দলটি ইউরোপের বড় মঞ্চেও যেকোনো দলকে চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রস্তুত।
চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বটা ক্ষমতার তুলনায় একটু সহজই মনে হয়েছিলো পিএসজির জন্য। তবে শেষ-১৬ তে এসে পিএসজি কোচ উনাই এমেরি হাড়েহাড়ে টের পেয়েছেন, এটা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ।
অপর দিকে বরাবরের মতো ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় নিজেদের খ্যাপাটে রূপটাই দেখিয়েছে রিয়াল। লা লিগায় একের পর এক ব্যর্থতা। লিগ শিরোপার আশাও একরকম শেষ হয়ে গেছে জিদানের শিষ্যদের। লেগানেসের বিপক্ষে হেরে কোপা দেল রে থেকেও বিদায় নিয়েছে লসব্লাঙ্কোজরা। এই রিয়ালও পিএসজির কাছে অজেয় হয়ে দাঁড়ালো। পার্থক্যটা অবশ্য রোনালদোই গড়ে দিয়েছেন। লিগে নিষ্প্রভ রোনালদো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের জন্যই যেনো শক্তি সঞ্চয় করে রেখেছিলেন।
অপরদিকে পিএসজির জন্য বোঝার উপর শাঁকের আঁটি হয়ে আসলো দলের সবচেয়ে বড় তারকা নেইমারের ইনজুরি। দুইটি অ্যাওয়ে গোলে পিছিয়ে থাকা সমীকরণ নিয়ে ঘরের মাঠে পিএসজি নেমেছিলো নেইমারকে ছাড়াই। তবে নেইমার ছাড়াও তো তারকার অভাব নেই পিএসজিতে। কাড়ি উইরো ঢালা হয়েছে তাদের জন্য। ২০১৩-১৪ মৌসুমে কাভানি এবং মারকুইনহোকে আনা হয় ১০৯ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে। পরের মৌসুমে দানি আলবেসকে কেনে ২০ মিলিয়ন ইউরোতে। ২০১৫-১৬ মৌসুমে ডি মারিয়া এবং কুরজাওয়ার জন্য ১১৪ মিলিয়ন এবং ২০১৬-১৭ মৌসুমে ড্রেক্সলার এবং লো চেলসোকে আনা হয় ১৩৬ মিলিয়ন ইউরোতে। কোনকিছুতেই যখন সাফল্য মিলছিলো না তখন আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেন খেলাইফি। চলতি মৌসুমে কেবল নেইমার এবং এমবাপ্পেকে কিনতে খরচ করেন ৪১৮ মিলিয়ন ইউরো।
পিএসজিতে টাকার ছড়াছড়ি গত ছয় বছর ধরে, কাতার স্পোর্টস ইনভেস্টমেন্টস (কিউএসআই) গ্রুপ দলটির মালিকানা নেয়ার পর থেকে। তবে এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপার কাছেও যেতে পারেনি তারা।
যদিও উনাই এমেরির অধীনে দলটিকে কোয়ালিটি সম্পন্ন বলতেই হবে। তবে ১ বিলিয়ন ইউরো ব্যয় করে কতটুকু সাফল্য পকেটে পুরতে পারতে পারলেন কাতারি শেখ নাসের আল খেলাইফি? হিসাব কষতে হয়তো বসে গেছেন এ ধনকুবের।

করোনা ভাইরাস লাইভ

আরও সংবাদ

stay home stay safe
বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
এক্সক্লুসিভ লাইভ
বিপিএল ২০২০

করোনা ভাইরাস লাইভ

আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি আর্কাইভ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop